kalerkantho

বুধবার । ৮ বৈশাখ ১৪২৮। ২১ এপ্রিল ২০২১। ৮ রমজান ১৪৪২

'কর্মক্ষেত্র এখনো নারীবান্ধব নয়'

অনলাইন ডেস্ক   

১৩ মার্চ, ২০২১ ২২:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'কর্মক্ষেত্র এখনো নারীবান্ধব নয়'

স্বাধীনতার ৫০ বছরে নারীর অগ্রগতি হলেও বৈষম্য দূর করে নারীর মর্যাদা এখনো প্রতিষ্ঠা হয়নি। নারীর প্রতি সহিংসতা আছে, কর্মক্ষেত্র এখনো নারীবান্ধব নয় বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক রেহানা ইউনূস।

শনিবার (১৩ মার্চ) ৩টায় বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের ঢাকা মহানগর কমিটির উদ্যোগে ‘নারী নেতৃত্বের বিকাশ ও সমতাপূর্ণ ভবিষ্যত গড়ার অঙ্গীকার’ বিষয়ক অনলাইন সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি মাহাতাবুন নেসা। স্বাগত বক্তব্যে ঢাকা মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক রেহানা ইউনূস এসব কথা বলেন।

বিষয়ভিত্তিক কর্মসূচি উপস্থাপন করেন সংগঠনের ঢাকা মহানগর কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক মঞ্জু ধর। আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির কমিটির সহ সভাপতি এবং ভারপ্রাপ্ত আন্দোলন সম্পাদক রেখা চৌধুরী, আন্তর্জাতিক সম্পাদক রেখা সাহা; তরুণ প্রজন্মের প্রতিনিধি ও ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাজিয়া আফরিন সুলতানা আফরিন,  আইএসটিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো. সাজিদ রুবেল এবং সোশ্যাল এক্টিভিস্ট আবদুল হান্নান। 

সভায় আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন ঢাকা মহানগর কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক মঞ্জু ধর।

সভায় বক্তারা বলেন, ঘরে-বাইরে নারীরা কাজের মূল্যায়ন পায় না। তাদের মর্যাদা দেওয়া হয় না। পরিবার থেকে নারীদের অবদমন করা শুরু হয়। সমাজ এখনো কর্পোরেট নারীদের বাঁকা চোখে দেখে, নারীদের নেতৃত্বের দক্ষতা বৃদ্ধি করা না হলে পরিবার, সমাজ সমর্থন না করলে নারী নেতৃত্বের প্রতিষ্ঠা চ্যালেঞ্জিং হয়ে যাবে। নারীর প্রতি সহিংসতা, ধর্ষণ বৃদ্ধি পেয়েছে। নারীবান্ধব নানা পদক্ষেপের কথা সরকারের পক্ষ থেকে বলা হলেও বাস্তবে নারীরা বৈষম্যের শিকার। 

পরিবার থেকে নারীবান্ধব প্যারেন্টিং শুরু করতে হবে, নেতৃত্বের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে ছেলে-মেয়েকে সমান সুযোগ দিতে হবে, নারী বিদ্বেষী মনোভাব দূর করতে হবে, পরিবার বদলালে সমাজ বদলাবে, দেশ ও রাষ্ট্র বদলাবে।

সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনের ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি মাহাতাবুন নেসার অনুপস্থিতে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভা শেষ করেন সাধারণ সম্পাদক রেহানা ইউনূস। সঞ্চালনা করেন সংগঠনের ঢাকা মহানগর কমিটির আন্দোলন সম্পাদক জুয়েলা জেবুননেসা খান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা