kalerkantho

সোমবার । ২৯ চৈত্র ১৪২৭। ১২ এপ্রিল ২০২১। ২৮ শাবান ১৪৪২

বাংলাদেশি নারীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের নতুন প্রকল্প

অনলাইন ডেস্ক   

৯ মার্চ, ২০২১ ১৭:২৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাংলাদেশি নারীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের নতুন প্রকল্প

আন্তর্জাতিক নারী দিবস এবং বাংলাদেশের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস বাংলাদেশি নারী ও মেয়েদের স্টেম (STEM-বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল ও গণিত) বিষয়ে কর্মজীবন গড়ে তুলতে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশি এনজিও সংস্থা এডুকেশন অ্যান্ড কালচারাল সোসাইটি (ইসিএস)-এর সঙ্গে যৌথভাবে একটি নতুন প্রকল্প চালু করেছে। দুই বছরব্যাপী এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে দেশজুড়ে স্টেম প্রতিযোগিতা আয়োজন করা ছাড়াও ৮০০-এরও বেশি স্টেম প্রশিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার দূতাবাসের অর্থায়নে গৃহীত প্রকল্প "স্ট্রেঙদেনিং  ইউএস-বাংলাদেশ সাসটেইনেবল রিলেশনশিপ বাই ডেভেলপিং স্টুডেন্ট-সেন্টারড স্টেম এডুকেশন (শিক্ষার্থীমুখী স্টেম শিক্ষার উন্নয়নের মাধ্যমে মার্কিন-বাংলাদেশ টেকসই সম্পর্ক জোরদারকরণ)" এর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ঢাকার ব্র্যাক ইনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বিশিষ্ট বিজ্ঞানী, স্টেম শিক্ষাবিদ ও শিক্ষার্থীদের সাথে যোগদান করেন।

রাষ্ট্রদূত মিলার অনুষ্ঠানে দেওয়া তার বক্তৃতায় বাংলাদেশ ও বিশ্বের বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীর অবদানের স্বীকৃতির কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে স্টেম বিষয়ে নারী ও মেয়েদের শিক্ষা-গ্রহণ ও কর্মজীবন গড়ে তুলতে তাদেরকে উৎসাহিত, অনুপ্রাণিত ও সহযোগিতা করার গুরুত্ব তুলে ধরেন।

যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পাবলিক অ্যাফেয়ার্স সেকশনের অর্থায়নে পরিচালিত দুই বছরব্যাপী এই প্রকল্পের মাধ্যমে স্টেম বিষয়ে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে বিশ্ববিদ্যালয়ে-পড়া-বয়সী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন ধরনের কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করা হবে, যার মধ্যে দেশব্যাপী স্টেম প্রতিযোগিতা আয়োজন এবং স্টেম প্রশিক্ষক/শিক্ষকদের প্রশিক্ষক-প্রশিক্ষণ রয়েছে।

এ ছাড়া জব ফেয়ার (চাকরি মেলা) ও ক্যারিয়ার কাউন্সেলিং (কর্মজীবন গড়ে তোলার লক্ষ্যে পরামর্শ দেওয়া)-এর মাধ্যমে তরুণীদের (১৮-২৫ বছর) প্রযুক্তি খাতে সফল পেশাগত জীবন গড়ে তোলার লক্ষ্যে পরামর্শ দেওয়া হবে। আশা করা হচ্ছে দেশব্যাপী স্টেম প্রতিযোগিতার আয়োজন বাংলাদেশের তরুণী ও মেয়েদের, বিশেষ করে সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীর নারীদের স্টেম ক্ষেত্রে অংশগ্রহণে আগ্রহী করে তুলবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের আটটি বিভাগের ৮০০ এরও বেশি নারী স্টেম প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ পাবেন, যা তাদেরকে স্থানীয় নারী, মেয়ে ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্যদের আরো ভালো ও কার্যকরভাবে স্টেম সম্পর্কে জানাতে এবং এই বিষয়ে শিক্ষা ও কর্মজীবন গড়ে তুলতে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিতে দক্ষ করে তুলবে।

"স্ট্রেঙদেনিং ইউএস-বাংলাদেশ সাসটেইনেবল রিলেশনশিপ বাই ডেভেলপিং স্টুডেন্ট-সেন্টারড স্টেম এডুকেশন (শিক্ষার্থীমুখী স্টেম শিক্ষার উন্নয়নের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ সম্পর্ক জোরদারকরণ)"প্রকল্প বাংলাদেশ ও আমেরিকার জনগণের সাথে জনগণের সম্পর্ক এবং যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের শিক্ষা-বিষয়ক সংযোগ ও সম্প্রসারণ, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে সম্পৃক্তকরণ, জেন্ডার সমতা নিশ্চিতকরণ, একটি টেকসই ও অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে নারী ও মেয়েদের অবদান রাখার সুযোগ তৈরি করা এবং একটি অবাধ ও স্বাধীন ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল গড়ে তোলার লক্ষ্যে ঢাকাস্থ যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের গৃহীত অনেকগুলো উদ্যোগের একটি।

যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের নতুন এই স্টেম শিক্ষা উদ্যোগ প্রকল্পের বাস্তবায়নকারী অংশীদার হলো এডুকেশন অ্যান্ড কালচারাল সোসাইটি (ইসিএস)। ইসিএস একটি অলাভজনক বাংলাদেশী সংস্থা। যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের সাবেক বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা এই সংস্থাটি গড়ে তুলেছেন। তাদের কাজের অন্যতম ক্ষেত্র হলো স্টেম শিক্ষার সুযোগ তৈরি করা এবং এর সম্প্রসারণ ও বিস্তার ঘটানো। এছাড়াও ইসিএস নারী ও মেয়েদের শিক্ষার বিস্তার ও ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশব্যাপী অধিকার ও সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করে; যার মধ্যে রয়েছে জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা (জিবিভি) মোকাবেলা করা, সহিংস উগ্রবাদ প্রতিরোধ (পিভিই) করা, বাল্য বিবাহ রোধ এবং অকালে মাতৃত্ব/গর্ভধারণ রোধ করা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা