kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৯ বৈশাখ ১৪২৮। ২২ এপ্রিল ২০২১। ৯ রমজান ১৪৪২

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন স্বাধীনতার মূল অঙ্গীকারের পরিপন্থী’

২৬ মার্চের আগেই বাতিল দাবি এবি পার্টির

অনলাইন ডেস্ক   

৬ মার্চ, ২০২১ ২০:২৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন স্বাধীনতার মূল অঙ্গীকারের পরিপন্থী’

এবি পার্টির সদস্যসচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেছেন, ভাষা আন্দোলন, ৬৯ এর গণ-অভ্যুত্থান এবং মহান মুক্তিযুদ্ধ এগুলো সবই ছিল জুলুম শোষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধের গৌরবোজ্জ্বল সংগ্রাম। আজ যদি ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য আমরা সংগ্রাম না করি, লুটপাট, গুম, খুন এর বিরুদ্ধে সোচ্চার না হই তবে তা হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া। তিনি ডিজিটাল সিক্যুরিটি আইনে আটকাবস্থায় নিহত লেখক মুশতাকের মৃত্যুকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড ও কার্টুনিস্ট কিশোরের ওপর চালানো নির্মম নির্যাতনকে আইয়ামে জাহেলিয়াতের নির্যাতনের সাথে তুলনা করে বলেন ডিজিটাল সিক্যুরিটি এক্ট স্বাধীনতার মূল অঙ্গীকারের পরিপন্থী। ২৬ মার্চের আগেই তা বাতিল করতে হবে।

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে আজ সকাল ১১টায় এবি পার্টি যশোর জেলা শাখার উদ্যোগে শহরের রেড ক্রিসেন্ট মিলনায়তনে এক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এবি পার্টি যশোহর জেলা আহ্বায়ক অধ্যক্ষ ইয়ামিনুর রহমানের সভাপতিত্বে 'মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি' শীর্ষক আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দলের যুগ্ম সদস্য সচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ ও সহকারী সদস্যসচিব ব্যারিস্টার সানী আব্দুল হক।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ বলেন, স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে উল্লেখিত তিন মূলনীতির ভিত্তিতে রাষ্ট্র পুনর্গঠনের লক্ষ্যে এবি পার্টির জন্ম। খুব শিগগিরই এবি পার্টি রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধনের জন্য প্রক্রিয়া শুরু করবে। সরকারি রাষ্ট্রযন্ত্রের পুলিশি নির্যাতনের মুখে যারা পীড়নের শিকার হবে এবি পার্টি সর্বোচ্চ সামর্থ নিয়ে তাদের পাশে থাকবে বলে তিনি অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

দলের সহকারী সদস্যসচিব ব্যারিস্টার সানী আব্দুল হক বলেন, ডাইনোসর সবচেয়ে বড় ও শক্তিমান প্রাণী হলেও সময়ের ব্যবধানে তা বিলুপ্ত হয়ে গেছে। বাংলাদেশে বড় দলগুলো গণতন্ত্র, সুশাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার বার বার ভূলুণ্ঠিত করেছে। দলগুলো যত বড়ই হোক জনপ্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় তারাও বিলুপ্ত হতে বাধ্য। তিনি বলেন নতুন দল হিসেবে ক্ষুদ্র শক্তি নিয়ে জনপ্রত্যাশা পূরণের মাধ্যমে এবি পার্টি সহসাই বৃহৎ দলে পরিণত হবে।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যক্ষ ইয়ামিনুর রহমান বলেন, যশোরের প্রত্যেক থানায় এবি পার্টির সংগঠন বিস্তৃত করা হবে। ক্রমান্বয়ে তা ইউনিয়ন পর্যায়ে বিস্তার লাভ করবে।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন শিক্ষাবিদ শেখর চন্দ্র সরকার, বিএনপি ইছালি ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি আবু বকর বিশ্বাস, প্রভাষক ফারুক হোসেন প্রমুখ।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা