kalerkantho

সোমবার । ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ৮ মার্চ ২০২১। ২৩ রজব ১৪৪২

মালয়েশিয়ায় জনশক্তি পাঠানোর জন্য বৈধ এজেন্সিকে সুযোগ দেওয়ার দাবি

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৮:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মালয়েশিয়ায় জনশক্তি পাঠানোর জন্য বৈধ এজেন্সিকে সুযোগ দেওয়ার দাবি

মালয়েশিয়ায় জনশক্তি পাঠানোর জন্য নতুন করে স্বল্পসংখক রিক্রুটিং এজেন্সির সিন্ডিকেট তৈরির অপচেষ্টার বিরোধিতা করে বায়রা সিন্ডিকেট নির্মূল ঐক্যজোটের পক্ষ থেকে সব বৈধ এজেন্সিকে জনশক্তি পাঠানোর সুযোগ দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে। রবিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনাতয়নে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান জোটের আহ্বায়ক ও সাবেক বায়রা মহাসচিব আলী হায়দার চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে নতুন করে সিন্ডিকেট তৈরির চেষ্টার প্রতিবাদে আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ভবনের সামনে মানববন্ধন ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদের কাছে স্মারকলিপি দেওয়ার কর্মসূচি ঘোষণা হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক বায়রা সভাপতি আবুল বাশার, জোটের সমন্বয়ক শাহাদাত হোসেন, সদস্য সচিব টিপু সুলতান, সাবেক সহ-সভাপতি আবুল বারাকাত, ফরিদ আহমেদ, ফখরুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম, মোহাম্মদ হোসেন ও মজিবুর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আগামী ১৬ ফেব্রয়ারি বাংলাদেশ মালয়েশিয়া জয়েন্ট-ওয়ার্কিং গ্রুপের অনলাইন সভায় কর্মী প্রেরণের জন্য এজেন্সির তালিকা চূড়ান্ত করার এজেন্ডা রাখা হয়েছে। যদি মালয়েশিয়া জনশক্তি প্রেরণকারী অন্য ১৩টি দেশ কোনো নির্দিষ্ট এজেন্সির মাধ্যমে কর্মী পাঠায় না। সেখানে সকল বৈধ এজেন্সিই কর্মী পাঠানোর সুযোগ পায়। সিন্ডিকেট করার সুবিধার জন্যই এ প্রস্তাব করা হয়েছে।

২০১৭-১৮ সালে মাত্র ১০টি এজেন্সির মাধ্যমে মাত্র ২.৫৯ লাখ কর্মী পাঠানো হয়। অথচ এতে ১৫ লাখ কর্মী পাঠানোর সুযোগ ছিল। এতে সকল এজেন্সি ব্যবসা করা সুযোগ হারায়, আর দেশ হারায় বিপুল সংখ্যক কর্মী পাঠানোর সুযোগ। প্রমাণিত সিন্ডিকেটের কারণে দেশ ও অন্য এজেন্সিগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

জোট নেতারা প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে এই বিতর্কিত এজেন্ডা বাদ দিয়ে বিদ্যমান ব্যবস্থায় অন্য সকল দেশের মতো বাংলাদেশেরও সকল এজেন্সিকে ব্যবসা করার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানান। তারা এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীরও হস্তক্ষেপ কামনা করেন। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি দেওয়ার ঘোষণা দেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা