kalerkantho

বুধবার । ৮ বৈশাখ ১৪২৮। ২১ এপ্রিল ২০২১। ৮ রমজান ১৪৪২

চলন্ত বাসে নির্যাতনের শিকার কলেজছাত্রীর চিকিৎসা ও নিরাপত্তা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৭:৫২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চলন্ত বাসে নির্যাতনের শিকার কলেজছাত্রীর চিকিৎসা ও নিরাপত্তা দাবি

সুনামগঞ্জের দিরাই পৌর শহরের সুজানগর এলাকায় চলন্ত বাসে কলেজছাত্রীকে বাসের চালক ও হেলপারের ধর্ষণের চেষ্টা এবং ধর্ষণ থেকে বাঁচতে চলন্ত বাস থেকে লাফিয়ে পড়ে কলেজছাত্রী গুরুতর আহত ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

এক বিবৃতিতে এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছে সংগঠনটি।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত ২৭ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখ বিভিন্ন দৈনিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে জানা যায় যে, সুনামগঞ্জের দিরাই পৌর শহরের সুজানগর এলাকায় চলন্ত বাসে কলেজছাত্রীকে বাসের চালক ও হেল্পার কর্তৃক ধর্ষণের চেষ্টা ও ধর্ষণ থেকে বাঁচতে চলন্ত বাস থেকে লাফিয়ে পড়ে কলেজছাত্রী গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। জানা যায় যে, সুনামগঞ্জ দিরাই সড়কের দিরাই পৌরসভার সুজানগর এলাকায় ২৬ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখ শনিবার সিলেটে বোনের বাড়ি থেকে সুনামগঞ্জ ফিরছিলেন এ সময় সন্ধ্যার দিকে বাসটি দিরাই বাসস্ট্যান্ডে পৌছানোর আগেই খালি হয়ে যায়। সুজানগর এলাকায় পৌঁছালে বাসের চালক ও তার সহকারী ওই কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে নিজ সম্ভ্রম রক্ষার জন্য কলেজছাত্রী বাস থেকে লাফিয়ে পড়লে তিনি মাথায় ও হাতে গুরুতর আঘাত পান। আহত কলেজছাত্রীকে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে দিরাই উপজেলা কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে মাথায় আঘাত গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে রাতেই তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।’

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘আমরা লক্ষ্য করছি যে, বিভিন্ন শ্রেনী পেশার নারী ও কন্যারা অব্যাহতভাবে ধর্ষণ, দলবদ্ধ ধর্ষণ ও ধর্ষণের পর হত্যা, চলন্ত গণপরিবহণে ধর্ষণ ও ধর্ষণের চেষ্টা এবং যৌন নিপীড়নের শিকার হচ্ছে। এই ধরণের নৃশংস ও বর্বর সহিংসতা নারী ও কন্যার স্বাধীন চলাচল ও নারীর অগ্রসরমান পথ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য গণপরিবহণে নারী ও কন্যার নিরাপত্তার নিশ্চিতকরণে সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন এবং বাস মালিক সমিতিকে আশু কার্যকর বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জোর দাবি জানাচ্ছে (মহিলা পরিষদ)।’

এ ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনী ব্যবস্থা গ্রহনসহ দ্রুত গ্রেফতার এবং সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানায় মহিলা পরিষদ।

বিবৃতিতে নির্যাতনের শিকার কলেজছাত্রীর সুচিকিৎসাসহ তার ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের দাবি জানাচ্ছে। সেইসাথে ধর্ষণ, গণধর্ষণ, যৌন হয়রানিসহ সকল প্রকার নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা প্রতিরোধে সকল সামাজিক শক্তিকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানায় মহিলা পরিষদ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা