kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ মাঘ ১৪২৭। ২৬ জানুয়ারি ২০২১। ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বাংলা একাডেমির ৬৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর বক্তৃতা

সংস্কৃতিই পূর্ববাংলার মানুষকে ‘পাকিস্তানি’ হতে দেয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ২০:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সংস্কৃতিই পূর্ববাংলার মানুষকে ‘পাকিস্তানি’ হতে দেয়নি

ফাইল ফটো

রবীন্দ্র সৃজনকলা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সৈয়দ মোহাম্মদ শাহেদ বলেছেন, ‘‘পূর্ববাংলার মানুষ তার সংস্কৃতির কারণেই পাকিস্তানকে মন থেকে গ্রহণ করতে পারেনি; সংস্কৃতিই পূর্ববাংলার মানুষকে ‘পাকিস্তানি’ হতে দেয়নি।’’ ‘সবার আগে সংস্কৃতি সবার সঙ্গে সংস্কৃতি’ শীর্ষক বাংলা একাডেমি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সংস্কৃতি আপনি গড়ে উঠে, সংস্কৃতিকে বানানো যায় না। বাঙালির সংস্কৃতি জীবনের সর্বক্ষেত্রে বিস্তৃত অর্থনীতি, রাজনীতি, কূটনীতি, সমাজ, ধর্ম। এর যা কিছু বাঙালি সংস্কৃতির প্রতিকূল, তার স্থান এখানে হবে না।’

বৃহস্পতিবার সকালে একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।

অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, সংস্কৃতি এক চলমান ও জীবন্ত বিষয়; একে কোনো সংজ্ঞায় আবদ্ধ করা যায় না। গতিময়তাই এর নান্দনিকতা। বাংলা একাডেমি বাঙালির জীবনে সংস্কৃতির সংগ্রামকেই সার্থক করে তুলেছে। ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় যতদিন বাংলাদেশ স্থিত থাকবে, ততোদিনই বাংলা একাডেমি তার প্রকৃতি মহিমায় উজ্জ্বল থাকবে।

বাংলা একাডেমির ৬৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন উপলক্ষ্যে সকালে একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা ও বাংলা একাডেমির পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে মহান ভাষা আন্দোলনের অমর শহিদদের স্মৃতির প্রতি এবং বাংলা একাডেমির স্বপ্নদ্রষ্টা ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্-র সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা