kalerkantho

সোমবার। ৪ মাঘ ১৪২৭। ১৮ জানুয়ারি ২০২১। ৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

হেফাজতের ষড়যন্ত্র এখনই রুখে দিতে হবে : যুব মৈত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ নভেম্বর, ২০২০ ১৭:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হেফাজতের ষড়যন্ত্র এখনই রুখে দিতে হবে : যুব মৈত্রী

হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব নূর হোসাইন কাসেমীর ভাস্কর্য নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্যে তীব্র ক্ষোভ, নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর সভাপতি সাব্বাহ আলী খান কলিন্স ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মুতাসিম বিল্লাহ সানি।
আজ শনিবার এক যৌথ বিবৃতিতে তারা হেফাজতের ষড়যন্ত্র এখনই রুখে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে জামেয়া মাদানীয়া বারিধারা মাদ্রাসায় ওলামাদের এক সভায় নূর হোসাইন কাসেমী প্রাণীর ভাস্কর্য নির্মাণেরর সিদ্ধান্ত থেকে সরকারকে সরে আসতে বলেন। সরে না আসলে তীব্র আন্দোলনের হুমকিও দেন।

এ বিষয়ে যুব মৈত্রী নেতারা বলেন, কাসেমী কৌশলে প্রাণীর ভাস্কর্য করা যাবে না বলে আদতে ভাস্কর্যের বিরুদ্ধেই তাদের অবস্থানকে তুলে ধরেছে। শুধু তাই নয়, তারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যও করা যাবে না বলে ফতোয়া জারি করেছে। প্রাণীর ভাস্কর্যের কথা বলে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করাই হেফাজত চক্রের মূল উদ্দেশ্য। হেফাজতে ইসলাম এই ধরনের অপতৎপরতার মাধ্যমে মহান মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে ভূলুণ্ঠিত করার সুদূরপ্রসারী চক্রান্ত বাস্তবায়নের পুরনো খেলায় মেতে উঠেছে। প্রকৃত অর্থে তারা পাকিস্তানি শাসক চক্রের ন্যায় ধর্মকে আশ্রয় করে আবারও পাকিস্তানি ভাবাদর্শ প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে লিপ্ত। কাসেমীর হুমকি-ধামকি স্বাধীনতার স্বপরে অসাম্প্রদায়িক- গণতান্ত্রিক চেতনার সাধারণ মানুষেকেই কার্যত হুমকি প্রদান।

বিবৃতিতে বলা হয়, যে কোনো দল ভাস্কর্য বসালে টেনে-হিঁচড়ে ফেলে দেয়া হবে, বলে হুমকি দিয়েছে, হেফাজতের আমীর জুনায়েদ বাবু নগরী। তাদের দুজনের বক্তব্য অত্যন্ত আপত্তিকর ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী। হেফাজতে ইসলাম সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে, দেশের মধ্যে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরী করার পাঁয়তারায় মেতেছে। এরা কৌশলে ভাস্কর্যের বিরোধিতা করলেও, এদের অবস্থান বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে। বাঙালির চেতনায় সাম্প্রদায়িকতার কোনো স্থান নেই আর বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক চেতনার প্রতীক। শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় বাঙালির অন্তরে চির দীপ্যমান বঙ্গবন্ধু।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, বাংলাদেশের মানুষ সাম্প্রদায়িক হেফাজতে ইসলামের হুমকি-ধামকি পরোয়া করে না। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশ চলমান আর সেই পথে ধর্মাশ্রয়ী সাম্প্রদায়িক অপশক্তির যে কোনো ধরনের সাম্প্রদায়িক উস্কানি, অপচেষ্টা ও ষড়যন্ত্রের দাঁতভাঙা জবাব দিতে বাংলাদেশের যুব সমাজ প্রস্তুত বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা