kalerkantho

শনিবার । ৯ মাঘ ১৪২৭। ২৩ জানুয়ারি ২০২১। ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

তাজরীন ট্র্যাজেডির অষ্টম বছরে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ নভেম্বর, ২০২০ ১২:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তাজরীন ট্র্যাজেডির অষ্টম বছরে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা

তাজরীন ট্র্যাজেডির আট বছর পূর্তি আজ। ঢাকার অদূরে আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুর এলাকায় ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর তাজরীন ফ্যাশনস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ১১৭ শ্রমিকের প্রাণহানি ঘটে।

দিবসটি উপলক্ষে কারখানাটির ফটকে ফুল দিয়ে আগুনে পুড়ে মৃত্যুবরণকারী শ্রমিকদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন হতাহতদের স্বজন ও শ্রমিক নেতারা।

আজ মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকেই কারখানার প্রধান ফটকের সামনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।  হতাহতদের স্বজনরা ছাড়াও গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতি, টেক্সটাইল গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স ফেডারেশন, টেক্সটাইল গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স ফেডারেশন, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, বাংলাদেশ শ্রম ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ পোশাক-শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন, গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স টেইলার্স লীগসহ বেশ কয়েকটি সংগঠনের নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও নীরবতা পালন করা হয়।

এসময় স্বজনরা জানান, আজ আট বছর পার হলেও নিহত শ্রমিকদের পরিবার ও আহত শ্রমিকরা পাননি কোনো ক্ষতিপূরণ। ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন ও অবিলম্বে এ ঘটনায় করা মামলা নিষ্পত্তির দাবি জানান তাঁরা।

শ্রদ্ধানিবেদন শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, তাজরিন ট্র্যাজেডির আট বছর পূর্ণ হলেও এখনো পর্যন্ত আহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করা হয়নি, শ্রমিকদের পুনর্বাসন করা হয়নি, যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়নি এবং তাজরিন ফ্যাশনের মালিকসহ দোষীদের বিচারকার্য শেষ করা হয়নি।

ওই ঘটনায় দগ্ধ হয়ে ১১৭ শ্রমিকের প্রাণহানি ছাড়াও তিন শতাধিক শ্রমিক আহত হন। আহতদের অনেকেই হারিয়েছেন তাঁদের কর্মক্ষমতা। এখন তাঁরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। দেশের ইতিহাসে শতাধিক শ্রমিক অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনা এটাই প্রথম।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা