kalerkantho

শুক্রবার। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৪ ডিসেম্বর ২০২০। ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

বায়তুল মোকাররমে রাজনৈতিক কার্যক্রম নিষিদ্ধের দাবি সম্মিলিত ইসলামী জোটের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ নভেম্বর, ২০২০ ১৬:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বায়তুল মোকাররমে রাজনৈতিক কার্যক্রম নিষিদ্ধের দাবি সম্মিলিত ইসলামী জোটের

জামায়াত-শিবির, হেফাজতি চক্রসহ ধর্ম ব্যবসায়ী সাম্প্রদায়িক সংগঠনগুলোর সব রাজনৈতিক কার্যক্রম বায়তুল মোকাররম মসজিদ ও সংলগ্ন চত্বরে নিষিদ্ধ করার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সম্মিলিত ইসলামী জোট।

রবিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। মহান আল্লাহ, পবিত্র কোরআন, মহানবী (সা.)-কে কটূক্তির প্রতিবাদের সীমারেখা এবং আমাদের করণীয় ও ভাস্কর্যকে মূর্তিপূজার সঙ্গে তুলনা করার পোস্টমর্টেম উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সম্প্রতি বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠনের মহানবী (সা.)-এর অবমাননা, ভাস্কর্য ও মূর্তিবিরোধী আন্দোলনের সমালোচনা করে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সম্মিলিত ইসলামী জোটের সভাপতি হাফেজ মাওলানা জিয়াউল হাসান।

তিনি বলেন, ইসলাম ধর্ম কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার শিক্ষা দেয় না। বরং আমাদের পবিত্র ইসলাম ধর্ম-জগতের সবচেয়ে গর্হিত অপরাধ শিরক প্রতিমাপূজাকেও গালমন্দ করতে আল্লাহ তায়ালা নিষেধ করেছেন।

তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তি যদি ভুল বোঝাবুঝি বা তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণে আল্লাহ, কোরআন, রাসুল (সা.) বা ইসলাম প্রসঙ্গে ভুল ধারণা পোষণ করে বা ব্যক্ত করে এর চিকিৎসা কি তাকে হত্যা করা কিংবা তাকে শাস্তি দেওয়া? কখনো নয়, বরং তাকে সুপথে আমন্ত্রণ জানাতে হবে যুক্তির মাধ্যমে, উৎকৃষ্ট প্রমাণ উপস্থাপন করার মাধ্যমে, উত্তম আচরণের মাধ্যমে।

জিয়াউল হাসান বলেন, মসজিদ আল্লাহর ঘর, এর পবিত্রতা রক্ষা করা আমাদের সবার কর্তব্য। মসজিদে নোংরা রাজনীতি, কূটনীতি, মিছিল, আন্দোলন, মসজিদের মাইক ব্যবহার করে পুলিশের ওপর আক্রমণ করা, পুলিশের অস্ত্র কেড়ে নিয়ে মারধর করা, ইট-পাথর নিক্ষেপ করা কোনো ধার্মিকের কাজ হতে পারে না।

অবিলম্বে বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়নে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে এবং জামায়াত-শিবির, হেফাজতি চক্রসহ জঙ্গি মদদদাতা, ধর্ম ব্যবসায়ী সাম্প্রদায়িক সংগঠনগুলোর সব রাজনৈতিক কার্যক্রম বায়তুল মোকাররম মসজিদ ও তার চত্বরে নিষিদ্ধ করার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নির্লিপ্ততায় উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠী ধর্মের নামে বায়তুল মোকাররম মসজিদ এবং তার চত্বরে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছে। মসজিদ একমাত্র ইবাদতের জায়গা। ইবাদত-বন্দেগি ছাড়া অন্য কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচিকে অবশ্যই সরকারকে প্রশাসনিকভাবে নিষিদ্ধ করতে হবে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা