kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

টাকা আত্মসাতের মামলায় তিন ব্যাংকারসহ চারজনের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ অক্টোবর, ২০২০ ১৭:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টাকা আত্মসাতের মামলায় তিন ব্যাংকারসহ চারজনের কারাদণ্ড

ফাইল ফটো

টাকা আত্মসাতের মামলায় এবি ব্যাংক লিমিটেডের তিন কর্মকর্তাসহ চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ বুধবার  ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন,  মেসার্স ওয়ান থ্রেড এন্ড একসেসরিজ ও বুশরা এসোসিয়েটস’র মালিক খন্দকার মেহমুদ আলম (নাদিম), মতিঝিল এবি ব্যাংক লি. কর্পোরেট শাখার সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও শাখা ব্যবস্থাপক আবু সালেহ মো. আব্দুল মাজেদ, মহাখালী এবি ব্যাংক লি. কর্পোরেট শাখার সিনিয়র সাবেক সিনিয়র এসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপক এ এল এম বদিউজ্জামান এবং একই শাখার সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসার ফারুক আহাম্মেদ ভূঁইয়া।

আদেশে বলা হয়, আসামি খন্দকার মেহমুদ আলমকে দুদক আইনের ৪০৯ ধারায় ৮ বছরের কারাদণ্ড দেন। একইসঙ্গে দুই কোটি টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ৪৬৮ ধারায় চার বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ৪৭১ ধারায় এক বছরের কারাদণ্ড, ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন ধারার সাজা একসাথে চলবে বলে জানিয়েছেন আদালত।

আসামি আবু সালেহ মো. আব্দুল মাজেদকে ৫(২) ধারায় সাত বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। একইসঙ্গে এক কোটি টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আসামি এ এল এম বদিউজ্জামান এবং ফারুক আহাম্মেদ ভূঁইয়াকে ৫(২) ধারায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড আদেশ দেন আদালত। একইসঙ্গে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।
আসামিরা পলাতক থাকায় আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাসহ সাজা পরোয়ানা জারি করেছেন।

মামলার সূত্রে জানা যায়, ৩ কোটি ৭৮ লাখ ৮৮ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০১৫ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি রাজধানীল মতিঝিল থানায় মামলাটি দায়ের করেন দুদক পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলী। মামলাটি তদন্ত করে ২০১৬ সালের ২১ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২০১৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি মামলাটির অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। মামলাটিতে মোট ১৩ জন সাক্ষীর মধ্যে ১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা