kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ১ ডিসেম্বর ২০২০। ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় ফাদার টিমকে স্মরণ

এদেশের পাশে থাকার জন্য মানুষ মনে রাখবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ অক্টোবর, ২০২০ ২০:৫২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় ফাদার টিমকে স্মরণ

‘যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ পুনর্গঠন এবং বিভিন্ন দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের দুর্দশা লাঘবে পাশে থাকায় ফাদার টিমকে এদেশের মানুষ চিরদিন স্মরণে রাখবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করেও ভোগ-বিলাসিতা ত্যাগ করে বাংলাদেশের শিক্ষা বিস্তার ও আর্ত মানবতার সেবায় ছয় দশকেরও বেশি সময় ধরে কাজ করেছেন মানবতাবাদী এই ব্যক্তিত্ব।’

কারিতাস বাংলাদেশের সাবেক নির্বাহী পরিচালক প্রয়াত রেভা. ফাদার রিচার্ড উইলিয়াম টিম-এর নাগরিক স্মরণ সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। ফাদার টিম গত ১১ সেপ্টেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৯৭ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

আজ শুক্রবার কারিতাস বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত কারিতাস বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট বিশপ জের্ভাস রোজারিও-এর সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি’রোজারিও। কারিতাস বাংলাদেশের আধ্যাত্মিক উপদেষ্টা ড. রেভা. ফাদার হিউবার্ট লিটন গমেজ-এর প্রার্থনা এবং নির্বাহী পরিচালক রঞ্জন ফ্রান্সিস রোজারিও-এর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়।

এতে এডাব সভাপতি জয়ন্ত অধিকারী, নিজেরা করি-এর প্রধান সমন্বয়কারী খুশি কবীর, আইপিডিএস সভাপতি সঞ্জিব দ্রং, কারিতাস এশিয়ার প্রেসিডেন্ট ড. বেনেডিক্ট আলো ডি’ রোজারিও, নটর ডেম ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ড. রেভা. ফাদার প্যাট্রিক গাফনি ফাদার টিম-এর বর্ণ্যাঢ্য কর্মময় জীবনের নানা দিক তুলে ধরেন।

কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি’রোজারিও বলেন, ‘ফাদার টিম বেঁচে আছেন। তিনি অমর তাঁর চিন্তায়, তাঁর কথায়, তাঁর কাজে।’
সংসদ সদস্য ও প্রিপ ট্রাস্ট-এর নির্বাহী পরিচালক মিজ্ আরমা দত্ত বলেন, ‘ফাদার টিম ছিলেন আমাদের উন্নয়নধারার প্রবর্তক। উনি ছিলেন বাংলাদেশের বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার স্রষ্টা।’

কারিতাস বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট বিশপ জের্ভাস রোজারিও বলেন, ‘ফাদার টিম বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচি রচনা করেছেন। নিঃস্বার্থভাবে তিনি সেবা করেছেন গ্রামে-গঞ্জে জনপদে।’

উল্লেখ্য যে, ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে প্রলয়ংকরী ঘূণিঝড় এবং ১৯৭১-এ স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় দেশের যে ক্ষতি সাধিত হয় এই সময় ত্রাণ ও পুনর্বাসনের জন্য তিনি নিজেকে পূর্ণভাবে নিয়োজিত করেছিলেন। ১৯৭১ থেকে ১৯৭২ খ্রিস্টাব্দে ছয় মাসের জন্য ফাদার টিম মনপুরা দ্বীপে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন প্রকল্পের পরিচালকের ভূমিকা পালন করেন। ১৯৭২ থেকে ১৯৭৪ খ্রিস্টাব্দে তিনি কারিতাস বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৭ খ্রিস্টাব্দে ইন্টারন্যাশনাল আন্ডারস্টান্ডিং ও বাংলাদেশের উন্নয়নে দীর্ঘ ৩৫ বছর অক্লান্ত পরিশ্রমের জন্য ফাদার টিম ম্যাগসায়সায় পুরস্কারে ভূষিত হন। ২০১২ খ্রিস্টাব্দে  বাংলাদেশ সরকার তাকে ‘মুক্তিযুদ্ধ মৈত্রী সম্মাননা’ প্রদান করেন। নটরডেম কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন কলেজটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ফাদার টিম।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা