kalerkantho

শুক্রবার। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৪ ডিসেম্বর ২০২০। ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

আজ মহাসপ্তমী, দুপুরে করোনামুক্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ অক্টোবর, ২০২০ ১০:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আজ মহাসপ্তমী, দুপুরে করোনামুক্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা

ছবি: শারদীয় দুর্গাপূজা।

চণ্ডীপাঠ, বোধন এবং দেবীর অধিবাসের মধ্য দিয়ে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। গতকাল ছিল মহাষষ্ঠী। দেবীর আগমনের মধ্য দিয়ে শুরু হলো দুর্গাপূজা। ষষ্ঠীর দিন দেবী আসনে আসীন হয়েছেন। মহালয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিল দেবী দুর্গার আগমনের ক্ষণগণনা। এবার দেবী এসেছেন দোলায়, যাবেন হাতির পিঠে চড়ে।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) সকাল থেকেই শুরু হয় মহাসপ্তমী পূজার আনুষ্ঠানিকতা। শুরুতেই বিশেষ রীতি মেনে স্নান করানো হয় মা দুর্গাকে। এ সময় দেবী দুর্গার প্রতিবিম্ব আয়নায় ফেলে বিশেষ ধর্মীয় রীতিতে স্নান সেরে, বস্ত্র ও নানা উপাচারে মায়ের পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

এরপর ত্রিনয়না দেবীর তৃতীয় চক্ষুদান করা হয়। নবপত্রিকা প্রবেশ ও স্থাপন শেষে দেবীর মহাসপ্তমী বিহিত পূজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর এবারের পূজার প্রথম অঞ্জলি। উপোস রেখে মায়ের পায়ে ফুলের অঞ্জলি দিয়ে চরণামৃত পান করে দিনের শুরু করবেন ভক্তরা।

এ বিষয়ে হিন্দুধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান শ্রী সুব্রত পাল বলেন, সপ্তমী, অষ্টমী, নবমী- সবগুলো দিনই আমাদের জন্য বিশেষ আনন্দের। এবার তো উৎসব হবে না, শুধু নিয়মের পূজাটি আমরা করব। সকালের পূজা শেষে আমরা মায়ের পায়ে অঞ্জলি দেব। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনেই অঞ্জলি দেওয়া হবে এবং এবার ভক্তদের প্রসাদ দেওয়াও বন্ধ রয়েছে।

করোনা মহামারির কারণে এবার অঞ্জলি দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে সরাসরি টেলিভিশনে এবং ফেসবুকে। ভক্তদের বাসায় বসেই অঞ্জলি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ।  তা ছাড়া মহাসপ্তমীর দিন দুপুর ১২টা ১ মিনিটে করোনামুক্তি এবং দেশ-জাতি ও বিশ্ব শান্তি কামনায় বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা