kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

দাফনের আগে নড়ে ওঠা সেই শিশুটিকে বাঁচানো গেল না

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ অক্টোবর, ২০২০ ০১:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দাফনের আগে নড়ে ওঠা সেই শিশুটিকে বাঁচানো গেল না

দাফনের আগে নড়ে ওঠা সেই নবজাতক দু’দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর এবার সত্যিই মারা গেছে। গতকাল বুধবার রাতে ঢামেক ঢাকা মেডিক্যাল (ঢামেক) হাসপাতালের ২১১ নম্বর নবজাতক ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ঢামেক হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকের বরাত দিয়ে নবজাতকের বাবা ইয়াসিন মোল্লা কালের কণ্ঠকে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। মৃত্যুর আগে ওই নবজাতকের নাম রাখা হয়েছিল মরিয়ম।

বহুল আলোচিত ওই শিশুকে গত সোমবার জন্মের কিছু সময় পর মৃত ঘোষণা করেছিলেন চিকিৎসকরা। সেদিনই তার মরদেহ কবরে রাখার আগেই নড়ে ওঠলে পরে তাকে এনে ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়। জীবিত শিশুকে মৃত ঘোষণা করার কারণ খুঁজতে তদন্ত কমিটিও গঠিত হয়। 

জানা গেছে, গত সপ্তাহের বুধবার প্রসূতি স্ত্রী শাহিনুর বেগমকে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে আসেন তাঁর স্বামী বাসচালক ইয়াসিন। তাকে এ হাসপাতালের গাইনি বিভাগের ২১২ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।

সোমবার ভোরে শিশুটির জন্মের পর হৃদস্পন্দন ছিল না। তারা ৪৫ মিনিট অবজারভেশনে রেখেছিল। তারপরও কোনো স্পন্দন না পেয়ে শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করা হয়েছিল। দু’দিন পর এবার সত্যিই শিশুটি মারা গেল। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা