kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

নারী উদ্যোক্তাদের ডিজিটাল মডেলের সাথে সংযুক্ত করতে হবে : স্পিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ২০:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারী উদ্যোক্তাদের ডিজিটাল মডেলের সাথে সংযুক্ত করতে হবে : স্পিকার

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে নারী উদ্যোক্তারা অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নারী উদ্যোক্তাদের কভিড-১৯ এর ক্ষতি উত্তরণে উদ্ভাবনী ডিজিটাল মডেলের সাথে সংযুক্ত করতে হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের স্বল্প সুদে ঋণ প্রদান কর্মসূচীতে নারী উদ্যোক্তাদের সম্পৃক্ত হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আজ বুধবার সন্ধ্যায় আমেরিকান চেম্বার অব কমার্স (আমচাম) আয়োজিত 'উইমেন এন্টারপ্রিনিউরশিপ ইন বাংলাদেশ' শীর্ষক প্যানেল ডিসকাশনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ সব কথা বলেন। 

আমচাম প্রেসিডেন্ট লুনা সামসুদ্দোহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন বিজিএমইএ'র সভাপতি ড. রুবানা হক, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের সিইও উজমা চৌধুরী, বিশিষ্ট নারী উদ্যোক্তা রুবাবা দৌলা মতিন, বিশ্ব ব্যাংক কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি মিয়াং টেম্বন, আমচামের এক্সিকিউটিভ কমিটি মেম্বার এন রাজাশেকারান প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে স্পিকার বলেন, নারী উদ্যোক্তাদের এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে সামাজিক প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে- লিঙ্গ বৈষম্য, জ্ঞান ও পরিচালন দক্ষতার অভাব, প্রশিক্ষণ ও প্রযুক্তি সহায়তার অভাব ইত্যাদি। কিন্তু নারীরা এসকল চ্যালেঞ্জকে সম্ভাবনায় পরিণত করে বিপুল উদ্যমে এগিয়ে চলেছে এবং নিজেদের প্রচেষ্টায় যথাযোগ্য স্থান করে নিচ্ছে। এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার বিশেষ সহায়তার উদ্যোগও নিয়েছেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, নারীদের অর্থনৈতিক স্বাধীনতা জরুরি। কারণ মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। কোনো সমাজই তার অর্ধেক মানবসম্পদকে কাজে না লাগিয়ে এগিয়ে যেতে পারে না। তাই সকল স্তর থেকেই নারীদের সর্বাত্নক সহযোগিতা ও উৎসাহ প্রদান করতে হবে। বিশেষত, প্রাতিষ্ঠানিক সহযোগিতা, ব্যাংকিং সহায়তা, সুদমুক্ত ঋণ সহায়তাসহ প্রতিবন্ধতা দূরীকরণে যথাযথ আইন ও নীতি প্রণয়ন করতে হবে। এক্ষেত্রে আমচাম আয়োজিত কর্মসূচি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা