kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ কার্তিক ১৪২৭। ২৯ অক্টোবর ২০২০। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ও লেভেল, এ লেভেল পরীক্ষা স্থগিত চেয়ে রিট আবেদন খারিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২০:৩৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ও লেভেল, এ লেভেল পরীক্ষা স্থগিত চেয়ে রিট আবেদন খারিজ

আগামী পহেলা অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য (অক্টোবর-নভেম্বর সেশন) ও-লেভেল এবং এ-লেভেল পরীক্ষার কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে দাখিল রিট আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করেছেন হাইকোর্ট। 

বিচারপতি জে বি এম হাসানের  ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার এ আদেশ দেন।

এ-লেভেল পরীক্ষার্থী তামান্না তাবাসসুম কবিরের পক্ষে অ্যাডভোকেট মনিরুজ্জামান লিংকন এ রিট আবেদন দাখিল করেন। এ আইনজীবী বুধবার আদালতে শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নূর উস সাদিক।

রিট আবেদনে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল পরিচালনার নীতিমালা প্রণয়ন এবং পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য শিক্ষার্থীদের সময় দেওয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়। গত ২৭ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট আবেদন দাখিল করা হয়। রিট আবেদনে শিক্ষা সচিব, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সচিব, মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার অতিরিক্ত সচিব এবং ব্রিটিশ কাউন্সিলের পরিচালককে বিবাদী করা হয়। 

গত ২৭ সেপ্টেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে বলা হয়, ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের পরিচালনায় ‘ও’ লেভেল এবং ‘এ’ লেভেল পরীক্ষা চার শর্তে আগামী ১ অক্টোবর থেকে ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত নেওয়ার অনুমতি দিয়ে মন্ত্রণালয় সম্মতি জানিয়েছে।

এর আগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর ব্রিটিশ কাউন্সিল এক বিবৃতিতে জানায়, চলতি বছরের অক্টোবর-নভেম্বর (২০২০) সেশনের ইন্টারন্যাশনাল জিসিএসই, আইজিসিএসই, ও-লেভেল এবং এ-লেভেল পর্যায়ের পরীক্ষা নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে। এ বিষয়ে বাংলাদেশের শিক্ষা মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিয়েছে বলেও জানায় ব্রিটিশ কাউন্সিল। ওই বিবৃতিতে বলা হয়, আসন্ন অক্টোবর-নভেম্বর সেশনের পরীক্ষায় যুক্তরাজ্যের পরীক্ষা বোর্ড কেবল পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করবে। পরীক্ষা ছাড়া কোনো ধরনের মূল্যায়ন হবে না। তবে, আর্ট ও ডিজাইন পরীক্ষা এর বাইরে থাকবে। এতে আরও বলা হয়, শিক্ষার্থীরা আগামী মাস থেকে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য তাদের পছন্দের কেন্দ্রের বিষয়ে জানবে।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশে প্রায় ৫ হাজার ২০০ শিক্ষার্থী আছে, যারা অক্টোবর-নভেম্বরের পরীক্ষার জন্য জুলাই-আগস্টে রেজিস্ট্রেশন করেছে। সময়মতো এই পরীক্ষা দেওয়া তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ব্রিটিশ কাউন্সিলের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার এবং বাংলাদেশ সরকারের কভিড-১৯ প্রোটোকলের পাশাপাশি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে পরীক্ষার কার্যক্রম পরিচালিত হবে। ব্রিটিশ কাউন্সিলের ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, নারায়ণগঞ্জ ও খুলনার সব পরীক্ষা কেন্দ্রে বাধ্যতামূলক ফেস মাস্ক পরিধান করা, পরীক্ষার্থীদের শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, পরীক্ষা কেন্দ্র নিয়মিত পরিষ্কার করা, স্যানিটাইজেশনসহ সকল সুরক্ষা প্রোটোকল মানা হবে।

এর আগে কভিড-১৯-এর প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্বব্যাপী মে-জুন সেশনের পরীক্ষা না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ব্রিটিশ কাউন্সিল। কিছুদিন ধরে শিক্ষার্থীরা অক্টোবর-নভেম্বর সেশনের ও-লেভেল এবং এ-লেভেল পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানিয়ে আসছিল। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা