kalerkantho

রবিবার। ১৬ কার্তিক ১৪২৭ । ১ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

'খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা নিতে চাইলে ব্যবস্থা করতে পারি'

অনলাইন ডেস্ক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা নিতে চাইলে ব্যবস্থা করতে পারি'

বাংলাদেশ সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা নিতে চাইলে আমরা ব্যবস্থা করে দিতে পারি বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটার্টন ডিকসন।

আজ বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সংগঠন ডিক্যাবের এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা জানান। 

অন্তর্বর্তীকালীন মুক্তির শর্তানুযায়ী, বেগম জিয়া চাইলেও বিদেশ যেতে পারবেন না। এজন্য তাকে সরকারের কাছে আবেদন করতে হবে। সরকার অনুমতি দিলে তবেই বিদেশ গমন করতে পারবেন তিনি। ফলে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ যাওয়াটা অনেকটা সরকারের ইচ্ছে-অনিচ্ছের ওপর নির্ভর করছে।

ভার্চ্যুয়ালি আয়োজিত ডিকাব টকে ব্রিটিশ হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশ সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা নিতে চাইলে আমরা ব্যবস্থা করে দিতে পারি। এ ক্ষেত্রে আমরা সানন্দে রাজি।

ডিকাব টকে ডিকাব সভাপতি আঙ্গুর নাহার মন্টি, সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর রহমানসহ সংগঠনের সদস্যরা অংশ নেন।

ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ (১) ধারায় বেগম জিয়ার দণ্ডাদেশ স্থগিত করে সরকারের নির্বাহী আদেশে গত ২৫ মার্চ ৬ মাসের জন্য তিনি মুক্তি পান। 

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট- এই দুই মামলায় ১৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাভোগ করছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এর মধ্যে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গেল বছরের এপ্রিলে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এরপর থেকে গত প্রায় ১১ মাস ধরে সেখানেই কারা নজরদারিতে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

দীর্ঘ ২ বছর ১ মাস ১৯ দিন কারাভোগের পর সরকারের নির্বাহী আদেশে ৬ মাসের সাজা স্থগিতাদেশ নিয়ে গত ২৫ মার্চ বিকেলে বিএসএমএমইউ থেকে মুক্তি পান দেশের অন্যতম বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা