kalerkantho

বুধবার । ৫ কার্তিক ১৪২৭। ২১ অক্টোবর ২০২০। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

'বিশ্ব মাফিয়াদের নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত তারেক রহমান'

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'বিশ্ব মাফিয়াদের নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত তারেক রহমান'

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, বিশ্ব মাফিয়াদের নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে সাজাপ্রাপ্ত আসামি তারেক রহমান। দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি ব্যাহত করতে এই ষড়যন্ত্র চলছে। কিন্তু তারেক-খালেদা জিয়ারা যত ষড়যন্ত্রই করুক না কেন, তা মোকাবেলা করে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার এগিয়ে যাবে।

আজ শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) নসরুল হামিদ মিলনায়তনে দিনব্যাপী স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সহযোগিতায় আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিআরইউ সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ। অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির যুব স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর শিকদার, ডিআরইউ সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী, ডিআরইউর প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাইদুর রহমান রুবেল, কল্যাণ সম্পাদক খালিদ সাইফুলল্লাহ, বৈশাখী টেলিভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার ফারহানা যুথী ও যমুনা টেলিভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার শাহাদাত হোসেন। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মহামারি করোনার শুরুর দিক থেকেই নানা কল্যাণমুখী কাজ করে যাচ্ছে। ফ্রি অ্যাম্বুল্যান্স সেবা, করোনা সংক্রমণ পরীক্ষা অন্যতম। সাংবাদিকরাও যে মানবকল্যাণে কাজ করতে পারে ডিআরইউ তার উদাহারণ সৃষ্টি করেছে।

তিনি আরো বলেন, ডিআরইউ অনলাইন জার্নালের মাধ্যমে ব্লাড ব্যাংক তৈরি করেছে। এটা খুবই ভালো উদ্যোগ। এখান থেকে ডিআরইউ সদস্যরা প্রয়োজনের সময় রক্ত আদান-প্রদান করতে পারবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের কারণে এটা সম্ভব হয়েছে। ডিআরইউ সদস্যদের কল্যাণে সব সময় পাশে থাকার আশ্বাস দেন উপমন্ত্রী।

রক্তদান কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ডিআরইউ এই প্রথমবারের মতো ব্লাডব্যাংক কার্যক্রমের সূচনা করল। রক্তের প্রয়োজনে ডিআরইউ সদস্য ও তাদের পরিবার এই ব্লাডব্যাংকের সহযোগিতা নিতে পারবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে রক্তদান ও রক্তের গ্রুপিং শুরু হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা