kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ২৬ ব্যক্তির নামে গেজেট প্রকাশ করতে হাইকোর্টের রায়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২৩:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ২৬ ব্যক্তির নামে গেজেট প্রকাশ করতে হাইকোর্টের রায়

টাঙ্গাইলের সখীপুরের ২৬ ব্যক্তিকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে ৯০ দিনের মধ্যে গেজেট প্রকাশের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ সোমবার এই রায় দেন। সংশ্লিষ্টদের এক রিট আবেদনে জারি করা রুলের ওপর শুনানি শেষে এ রায় দেওয়া হয়। আদালতে রিট আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন মো. আহসান।

তিনি জানান, যারা দেশের ভেতরে থেকেই প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ও মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন, তাদেরকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, যারা দেশের ভেতরে থেকেই মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন, মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া তাদের অধিকার।

উপজেলা পর্যায়ে যাচাই-বাছাই শেষে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত টাঙ্গাইলের জেলা কমিটি সখীপুর উপজেলার ২৯৫ জনের নাম সুপারিশ করে ২০০৪ সালে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। তাঁদের নাম গেজেট আকারে প্রকাশ না হওয়ায় সখীপুরের কুতুবউদ্দিন আহমেদসহ ২৬ জন নিজেদের মুক্তিযোদ্ধা দাবি করে ২০১৬ সালে হাইকোর্টে রিট আবেদন দাখিল করেন। ওই বছরের ১৫ ডিসেম্বর হাইকোর্ট রুল জারি করেন।

রুলে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তাঁদের নাম অন্তর্ভুক্ত করে কেন গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়। এর পর ২০১৬ সালের ১০ নভেম্বর মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় ‘মুক্তিযোদ্ধা এর সংজ্ঞা ও বয়স নির্ধারণ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করে। এতে দেশের অভ্যন্তরে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারীদের মুক্তিযোদ্ধার সংজ্ঞা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে প্রজ্ঞাপনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে সম্পূরক আবেদন করেন রিটকারীরা। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট দেশে প্রশিক্ষণ ও মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারীদের ওই সংজ্ঞায় কেন অন্তর্ভুক্ত করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। এ সংক্রান্ত দুটি রুল যথাযথ ঘোষণা করে আজ এ রায় দেওয়া হয়। 

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে আইনজীবী মোহাম্মদ আহসান ও রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ সাইফুজ্জামান শুনানি করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা