kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১১ সফর ১৪৪২

সংকটাপন্ন প্রণব

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ আগস্ট, ২০২০ ০২:৫৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সংকটাপন্ন প্রণব

মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পর সংকটাপন্ন অবস্থায় এখনো ভেন্টিলেটরে রয়েছেন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। তবে তিনি চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন বলে গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন তাঁর ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, ৯৬ ঘণ্টা তিনি চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকবেন।

গত সোমবার রাতে দিল্লির আর্মি হসপিটাল রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেলে অস্ত্রোপচার করে তাঁর মস্তিষ্ক থেকে জমাট রক্ত অপসারণ করেন চিকিৎসকরা। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই ভেন্টিলেটরে নেওয়া হয় ৮৪ বছর বয়সী এই রাজনীতিককে।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, এর আগে রবিবার রাতে বাড়ির বাথরুমে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান প্রণব মুখোপাধ্যায়। রক্তপাত না হলেও সোমবার সকাল থেকে স্নায়ুঘটিত সমস্যা দেখা দেয়। বাঁ হাত নাড়াচাড়া করতে সমস্যা হয়। তাই চিকিৎসকের পরামর্শে আর্মি হসপিটাল রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেলে ভর্তি হন। এমআরআই স্ক্যানে দেখা যায়, আঘাত পাওয়ার ফলে তাঁর মাথার ভেতর রক্ত জমাট বেঁধে রয়েছে। তাই জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা।

অস্ত্রোপচারের আগে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে গিয়ে দেখা যায়, তাঁর শরীরে দানা বেঁধেছে করোনাভাইরাস (কভিড-১৯)। সেই অবস্থাতেই সোমবার রাতে অস্ত্রোপচার হয় তাঁর। তারপর ভেন্টিলেটরে রাখা হয় তাঁকে। তিনি ডায়াবেটিসের রোগী। তাই তাঁর ওপর নজর রাখতে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। তবে তিনি এখনো পুরোপুরি বিপদমুক্ত নন বলে জানা গেছে।

গতকাল সকালে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘অস্ত্রোপচারের পর ধীরে ধীরে পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। তবে আগামী চার দিন তিনি চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণেই রয়েছেন। এক ঘণ্টা পর পর বুলেটিন প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরিবারের একজন করে সদস্য হাসপাতালে যাওয়ার অনুমতি পেয়েছে।’

অন্যদিকে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের শরীরে কভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়ায় তাঁর পরিবারের সদস্যদেরও করোনা পরীক্ষা করা হয়। তবে তাঁদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। গত এক সপ্তাহে যাঁরা তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন, সোমবার নিজেই তাঁদের করোনা পরীক্ষা করিয়ে নিতে অনুরোধ করেন সাবেক রাষ্ট্রপতি। তাঁর সুস্থতা কামনা করে ইতিমধ্যেই টুইট করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কংগ্রেস সংসদ সদস্য রাহুল গান্ধী প্রমুখ। প্রণব মুখোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্যের খবর নিতে সোমবারই হাসপাতালে যান কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং।

প্রণব মুখোপাধ্যায় ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ভারতের প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তিনি বহু বছর ছিলেন কংগ্রেসের প্রথম সারির নেতা। ছয় বছর আগে হৃদ্যন্ত্রে ব্লক ধরা পড়ার পর থেকে নিয়মিত চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে আছেন।

বাংলাদেশের সব সময়ের একজন অন্তরঙ্গ বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষী প্রণব মুখোপাধ্যায়। তিনি বিয়েও করেছেন এ দেশে। তাঁর স্ত্রী প্রয়াত শুভ্রা মুখোপাধ্যায়ের পৈতৃক বাড়ি নড়াইলের ভদ্রবিলা গ্রামে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা