kalerkantho

শুক্রবার। ১৭ আশ্বিন ১৪২৭। ২ অক্টোবর ২০২০। ১৪ সফর ১৪৪২

নরেন দাসকে আমরা হারিয়ে যেতে দেব না : আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ আগস্ট, ২০২০ ২০:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নরেন দাসকে আমরা হারিয়ে যেতে দেব না : আইনমন্ত্রী

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের প্রয়াত সচিব নরেন দাসকে আমরা হারিয়ে যেতে দেব না। নরেন ছিলেন কাজে অত্যন্ত নিষ্ঠাবান ও আন্তরিক, নিরহংকারী। সবদিক থেকে সৎ এবং বঙ্গবন্ধুর একনিষ্ঠ সৈনিক।

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের প্রয়াত সচিব নরেন দাস স্মরণে আজ সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন আইনমন্ত্রী।

লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ এ স্মরণ সভার আয়োজন করে। লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব (চলতি দায়িত্ব) মো. মইনুল কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে আইন কমিশনের চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার, প্রয়াত সচিব নরেন দাসের স্ত্রী মিতালি রানী দাস, আইন ও বিচার বিভাগের  যুগ্ম সচিব উম্ম কুলসুম, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের যুগ্ম সচিব হাফিজ আহমেদ চৌধুরী ও মোহাম্মদ জাকির হোসেন অংশ নেন এবং তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের যুগ্ম সচিব ড. মো. জাকেরুল আবেদীন।

আইনমন্ত্রী বলেন, নরেন দাস আজ আমাদের মাঝে না থাকলেও তাঁর যে স্পিরিট সেটা আমাদের জীবিত রাখতে হবে।  কারণ নরেন দাসের স্পিরিটগুলো কাজে লাগালে দেশের উপকারের পাশাপাশি তাঁর যথার্থ মর্যাদাও প্রদান করা হবে।

তিনি বলেন, নরেন দাসের ব্যবহারের মধ্যে যে অমায়িকভাব ছিল তা সত্যিই অনুকরণীয়। তাঁর মধ্যে কোনো গরিমা ছিল না। নরেন দাস সবসময় মানুষের সাথে আন্তরিক ব্যবহার করতেন। তিনি না থাকার যে শূন্যতা তা আমাদেরকে ব্যথিত করা ছাড়াও কাজে শূন্যতা অনুভব করাবে।

উল্লেখ্য, নরেন দাস করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২১ জুলাই মৃত্যুবরণ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা