kalerkantho

শনিবার । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭। ৮ আগস্ট  ২০২০। ১৭ জিলহজ ১৪৪১

বর্জ্য অপসারণে এগিয়ে উত্তর সিটি, বৃষ্টিতে ব্যাহত দক্ষিণে

অনলাইন ডেস্ক   

১ আগস্ট, ২০২০ ১৯:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বর্জ্য অপসারণে এগিয়ে উত্তর সিটি, বৃষ্টিতে ব্যাহত দক্ষিণে

২৪ ঘণ্টার মধ্যে নগরীকে পরিচ্ছন্ন করার লক্ষ্যে রাজধানীতে কোরবানিকৃত পশুর বর্জ্য অপসারণে কাজ করছে প্রায় সাড়ে ১৭ হাজার পরিছন্নতাকর্মী। এরমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পেরেশনের (ডিএনসিসি) পরিচ্ছন্নতাকর্মী রয়েছে ১১ হাজার ৫০৮ জন। বাকী সাড়ে ৬ হাজারের অধিক পরিচ্ছন্নতাকর্মী দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি)।

কিন্তু ঈদের দিন সকালে টানা এক ঘণ্টার ভারী বৃষ্টিতে রক্ত, দূষিত পদার্থ ধুয়ে পথঘাট পরিষ্কার হলেও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ব্যাহত হয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা। কিন্তু ভিন্ন দৃশ্য উত্তর সিটিতে। বৃষ্টি না হওয়ায় সেখানে স্বস্তিতে কাজ করছেন পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা।

সিটি কর্পোরেশনের এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী বলেন, আমরা বিভিন্ন কাজ করছি। তারপর কুরবানির গরুর ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করছি। কিন্তু বাধ সাধে তুমুল বৃষ্টি। প্রায় ১ ঘণ্টার বর্ষণে থামাতে হয় কাজ।

এলাকাবাসীরা জানান, আমাদের কাজ শেষ হলে আমরা সব পরিষ্কার করে ব্লিচিং ছিটিয়ে দেই। সিটি কর্পোরেশনের জন্য আমরা ওয়েট করি না। পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের তাড়া ছিল জলাবদ্ধতা তৈরির আগেই বর্জ্য সরিয়ে নেবার।

আরেক পরিচ্ছন্নতা কর্মী বলেন, আমরা কোনো আসুখ-বিসুখরে ডরাই না। আমরা বর্জ্য পরিষ্কার কইরা দিমু এইটাই আমাগো কাজ।

করোনার কারণে এবার পশু কোরবানি হয়েছে ৪০ শতাংশ কম। তারপরও বিশাল কর্মীবাহিনীসহ সাড়ে ৭শ' যানবাহন ব্যবহার করে, যত দ্রুত সম্ভব বর্জ্য অপসারণের আশ্বাস দিলেন দুই মেয়র।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এলাকার যেকোনো নাগরিক ফোন করে বর্জ্য অপসারণ সংক্রান্ত তথ্য জানাতে কন্ট্রোল রুম চালু করেছে। সংশ্লিষ্ট নগরীর অধিভূক্ত এলাকার যেকোনো নাগরিক বা গণমাধ্যমকর্মি এই নম্বরে ফোন করে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ জানালে তা অপসারণে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

ডিএনসিসি’র কন্ট্রোল রুমের নম্বর : ০২-৫৮৮১৪২২০; ০৯৬০-২২২২৩৩৩; এবং ০৯৬০-২২২২৩৩৪ এবং ডিএসসিসি’র কন্ট্রোল রুম নম্বর : ০১৭০৯৯০০৭০৫ এ নাগরিকরা ফোন করতে পারবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা