kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

'ভুয়া করোনা সনদ নিয়ে বাংলাদেশিরা ইতালিতে প্রবেশ করেনি'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ জুলাই, ২০২০ ২০:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'ভুয়া করোনা সনদ নিয়ে বাংলাদেশিরা ইতালিতে প্রবেশ করেনি'

ইতালি সরকার অন্য ১২টি দেশের সঙ্গে ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে বিমান স্থগিত করার প্রেক্ষিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আজ বৃহস্পতিবার স্পষ্ট করে জানিয়েছে মহামারীতে ইতালিতে প্রবেশ করা বাংলাদেশিরা নকল কভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে যায়নি।

ইতালির কিছু বাংলাদেশি প্রবাসীদের মধ্যে করোনভাইরাস সনাক্তকরণ সংক্রান্ত কিছু সংবাদপত্রে প্রকাশিত সংবাদ এবং কয়েকটি নিউজ চ্যানেলে সম্প্রচারিত সংবাদের দিকে তার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ব্যাখ্যা স্পষ্ট করে।

এতে বলা হয়েছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তুলে ধরতে চাই যে সম্প্রতি ইতালিতে যাওয়া প্রায় ১ হাজার ৬ শ’ বাংলাদেশি ভুয়া কভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে যায়নি। ইতালি সরকার এখনো ইতালি ভ্রমণের জন্য কভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট বহন করার কোনো শর্ত রাখেনি, যদিও কিছু বাংলাদেশি যাত্রী যদি তাদের পরবর্তীতে প্রয়োজন হয় তাই তারা নিজেরা সার্টিফিকেট বহন করে।

বাস্তবতা হচ্ছে, (ইতালিগামী বাংলাদেশি) যাত্রীদের মধ্যে মাত্র ৩৩ জন কভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট বহনকারী এবং রিজেন্ট হাসপাতাল বা জেকেজি থেকে কেউ নেয়নি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, ইতালির কোনো যাত্রীকে নেগেটিভ কভিড সার্টিফিকেট বহন করার প্রয়োজন ছিল না। এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ক্ষুদে বার্তায় গণমাধ্যমকে জানান।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট করে আরো বলা হয়েছে, ইতালি কর্তৃপক্ষ আরো ১২টি দেশের সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত ফ্লাইট চলাচল নিষিদ্ধ করেছে, যদিও কিছু গণমাধ্যম প্রচার করে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত ইতালি ফ্লাইট নিষিদ্ধ করেছে। তবে দুর্ভাগ্যবশত, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ইতালি ভ্রমণ করা কিছু বাংলাদেশি বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন নিয়ম মেনে চলেনি এবং ‘সম্ভবত তাদের মধ্যে কেউ কমিউনিটিতে এই ভাইরাস ছড়িয়ে থাকতে পারেন।

গত এক সপ্তাহে ৫ হাজার পরীক্ষার মধ্যে ইতালির লাজিও অঞ্চলের ৬৫ জন বাংলাদেশির করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পাওয়া গেছে। এদিকে ইতালি সরকার রোমে বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে সমন্বয় করে বসবাসকারী সকল বাংলাদেশির (প্রায় ৩০ হাজার) জন্য কভিড-১৯ পরীক্ষা চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা