kalerkantho

শুক্রবার । ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭। ৭ আগস্ট  ২০২০। ১৬ জিলহজ ১৪৪১

হেফাজতের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না : আল্লামা শফী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ জুলাই, ২০২০ ১৮:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হেফাজতের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না : আল্লামা শফী

হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে কোনো দুষ্টচক্রের ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনটির আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী। মঙ্গলবার বিকালে গণমাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি এ ঘোষণা দেন।

হেফাজতে ইসলামের প্রচার সম্পাদক মাওলানা আনাস মাদানী প্রেরিত এ বিবৃতিতে হেফাজত আমির বলেন, রাসুলে কারিম (সা.)-এর শান-মান, সাহাবায়ে কেরামের আজমতসহ ইসলামের ইজ্জত-সম্মান ও প্রাধান্য সুরক্ষায় হেফাজতে ইসলামের আত্মপ্রকাশ। জাতির এক ক্রান্তিলগ্নে দেশের নাস্তিক্যবাদী অপশক্তি যখন প্রকাশ্যভাবে আল্লাহ ও তাঁর রাসূল (সা.) এবং ইসলামের বিভিন্ন মৌলিক বিষয়াবলীর সুস্পষ্ট বিদ্রোহ ঘোষণা করে, অপমানকর বক্তব্য প্রদান করে, তখনই হেফাজতে ইসলাম এসবের বিরুদ্ধে গর্জে উঠে। দেশের কোটি কোটি মানুষের ঈমান-আকিদা ও ইসলামী মূল্যবোধ সুরক্ষায় রাজপথে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দেয়। আবারও যদি কেউ আল্লাহ ও তাঁর রাসূল (সা.), সাহাবায়ে কিরাম তথা ইসলামের বিরুদ্ধে কোনো কথা বলে হেফাজতে ইসলাম পুনরায় গর্জে উঠবে বলে হুঁশিয়ারি দেন সংগঠনটির আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

তিনি বলেন, হেফাজত কোনো রাজনৈতিক দল নয়। সরকারের পক্ষের কিংবা বিপক্ষের শক্তি নয়। পরিতাপের বিষয় হচ্ছে। একটি চক্র হেফাজতকে বিরোধী দলের ভূমিকায় নিয়ে যেতে চায়। যা হেফাজতের লক্ষ্য উদ্দেশ্যের সাথে সাংঘর্ষিক। নাস্তিক্যবাদী অপশক্তি প্রকাশ্যভাবে হেফাজতে ইসলামের মোকাবিলা করতে পারবে না বলেও এসময় তিনি মন্তব্য করেন।

বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, ইসলামবিরোধী ওই অপশক্তি প্রকাশ্য মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়ে ইদানিং পেছনের দরজায় হামলা করছে বলে মনে হয়। হেফাজতের ভেতরে ঘাপটি মেরে বসে থাকা এবং হেফাজতের কোনো স্তরের কমিটিতে না থাকা একটি সিন্ডিকেট জ্ঞাতে-অজ্ঞাতে আজ নাস্তিক্যবাদীর খেলনায় পরিণত হয়েছে। তারা হেফাজতে ইসলাম, হেফাজতের শুরু থেকে সংশ্লিষ্ট ত্যাগী নেতৃবৃন্দ, আমার ও আমার ছেলের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেডেড জঘন্য কুৎসা ও অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে।
তারা ভেতর থেকে এসব অপপ্রচার করে হেফাজতে ইসলামকে দুর্বল করতে চায়, সংগঠনটির ইমেজ নষ্ট করতে চায় এবং জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা