kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ মাঘ ১৪২৮। ২৮ জানুয়ারি ২০২২। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সেমিনারে সংসদ সদস্য ও নাগরিক সমাজ প্রতিনিধিরা

স্থানীয় সরকারের নেতৃত্বে উপকূলীয় বাঁধের জন্য জরুরি বরাদ্দের সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জুন, ২০২০ ১৯:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্থানীয় সরকারের নেতৃত্বে উপকূলীয় বাঁধের জন্য জরুরি বরাদ্দের সুপারিশ

স্থানীয় সরকারের নেতৃত্বে উপকূলীয় বাঁধের জন্য জরুরি বরাদ্দের সুপারিশ করেছে সংসদ সদস্যসহ নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। আজ শনিবার ‘জাতীয় বাজেট ২০২০-২১ : বেড়িবাঁধ ও উপকূলের মানুষের সুরক্ষা’ শীর্ষক অনলাইন সেমিনারে তারা এই সুপারিশ করেন।

বেসরকারি সংস্থা কোস্ট ট্রাস্ট ও সিএসআরএল (ক্যাম্পেইন ফর সাসটেইনেবল রুরাল লাইভলিহুড) আয়োজিত সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন পিকেএসএফ’র চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমেদ।

কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরীর সঞ্চালনায় সেমিনারে অংশ নেন পরিবেশ বন ও জলবায়ু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী, সংসদ সদস্য আখতারুজ্জামান বাবু, সিএসআরএল’র জিয়াউল হক মুক্তা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন ড. মাহবুবা নাসরিন, সিপিআরডি’র মো. শামছুদ্দোহা, এওসোড’র শামীম আরেফীন, কোস্ট ট্রাস্টের আরিফ দেওয়ান প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, সাইক্লোন আমফানের পূর্বে প্রস্তুতি ভালো হওয়ায় আমরা প্রাণহানী এড়াতে পেরেছি। কিন্তু এসব এলাকায় বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও তার স্থায়িত্বশীল সংরক্ষণের জন্য আমাদের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা করতে হবে। আগামী অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় এটিকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। তিনি এই কাজে স্থানীয় জনগণের অংশগ্রহণ ও স্থানীয় সরকারের নেতৃত্ব নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।

এমপি আখতারুজ্জামান বাবু বলেন, সাইক্লোন আইলার পর থেকেই খুলনা ও সাতক্ষীরা অঞ্চলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের যথাযথ নকশা অবলম্বন করে বেড়িবাঁধ নির্মাণ না করায় পুরো অঞ্চল এখন অরক্ষিত। এসব জায়গায় জরুরি ভিত্তিতে বাঁধ নির্মাণ করতে হবে।

ড. কাজি খলীকুজ্জমান আহমেদ সরকারকে উপকূলীয় বেড়িবাঁধ নির্মাণে অগ্রাধিকারের পরামর্শ দিয়ে বলেন, বেড়িবাঁধ নির্মাণ দুর্নীতি মুক্ত রাখতে হবে। এজন্য এতে স্থানীয় সরকারকে বিশেষ দায়িত্ব দিতে হবে।

দ্রুত উপকূলের বেড়িবাঁধ নির্মাণের কাজ শুরুর দাবি জানিয়ে রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, আমরা এক্ষেত্রে শ্রীলংকার মডেল অনুসরণ করতে পারি। বেড়িবাঁধের উভয় পাশে বনায়ন গড়ে তুলতে হবে। এতে বাঁধ দীর্ঘস্থায়ী হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।  



সাতদিনের সেরা