kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ আষাঢ় ১৪২৭। ৩ জুলাই ২০২০। ১১ জিলকদ  ১৪৪১

ফারমার্স ব্যাংকে জালিয়াতির মামলায়

রাশেদুল চিশতীর জামিন স্থগিতই থাকল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ মে, ২০২০ ১৯:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাশেদুল চিশতীর জামিন স্থগিতই থাকল

ফারমার্স ব্যাংকের (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতী ওরফে বাবুল চিশতীর ছেলে রাশেদুল হক চিশতীকে নিম্ন আদালতের দেওয়া জামিন স্থগিত করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বহাল রয়েছে। নিয়মিত আদালত না খোলা পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন। গত ১৯ মে রাশেদুল চিশতীকে জামিন দেয় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬। এই জামিন স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করে দুদক।

এর আগে গত ২০ মে একই হাইকোর্ট বেঞ্চ এক আদেশে ২৮ মে পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন। এ অবস্থায় আজ নির্ধারিত দিনে আদালত স্থগিতাদেশ বহাল রেখে আদেশ দেন। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ। আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন ও অ্যাডভোকেট শাহরিয়ার কবির।

ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির মাধ্যমে প্রায় ১৬০ কোটি টাকা অর্থ আত্মসাত ও অর্থ পাচারের অভিযোগে বাবুল চিশতী, তার স্ত্রী রুজী চিশতী, ছেলে রাশেদুল হক চিশতী, ব্যাংকটির ফার্স্ট প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ মাসুদুর রহমান খান, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট জিয়া উদ্দিন আহমেদ এবং ব্যাংকটির গুলশান করপোরেট শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক দেলোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের ১০ এপ্রিল গুলশান থানায় একটি মামলা করে দুদক। ওইদিনই বাবুল চিশতীকে সেগুনবাগিচা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাবন্দী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা