kalerkantho

বুধবার । ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বিপদে ফেলে এটিএম থেকে টাকা উত্তোলন, তরুণকে ধরিয়ে দিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জানুয়ারি, ২০২০ ১৫:১০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিপদে ফেলে এটিএম থেকে টাকা উত্তোলন, তরুণকে ধরিয়ে দিন

রাস্তায় চলার সময় উল্টো দিক থেকে এক তরুণ এসে এক ব্যক্তিকে ধাক্কা দেয় এবং একটি মোবাইল মাটিতে ফেলে দেয়। এর পর মোবাইলের গ্লাস ফেটে গেছে বলে টাকা দাবি করে। তরুণের সঙ্গে যোগ দেয় আরো দুজন। ওই ব্যক্তিকে বিপদে ফেলে তার কাছ থেকে দুই হাজার ৯০০ টাকা হাতিয়ে নেয় এবং তার মানিব্যাগে থাকা ভিসা এটিএম কার্ড নিয়ে বুথ থেকে আরো ১৯ হাজার টাকা তুলে নেয় তরুণেরা।

এ ঘটনাটি ঘটেছে গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর রাজধানীর চকবাজার থানার জেলখানার নতুন নির্মানাধীন কোয়ার্টারের টেম্পু স্ট্যান্ডে। 

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) নিউজ পোর্টাল ডিএমপি নিউজে ওই তরুণের ছবি দিয়ে বলা হয়, এ ব্যক্তি এমন এক কাণ্ড ঘটিয়েছেন যা শুনলে আপনিও রীতিমত হতভম্ব হয়ে যাবেন। ছবিতে প্রদর্শিত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারে সহায়তা চায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) চকবাজার মডেল থানা পুলিশ। 

চকবাজার মডেল থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক কৃষ্ণ পদ মজুমদার বলেন, গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর এক ভদ্র ব্যক্তি থানায় এসে অভিযোগ করেন, সন্ধ্যা অনুমান সাড়ে সাতটায় তিনি চকবাজার থানার জেলখানার নতুন নির্মানাধীন কোয়ার্টারের টেম্পু স্ট্যান্ডে পথ চলার সময় উল্টো দিক থেকে ২৫ বছরের এক তরুণ এসে তার গায়ে ধাক্কা মারে। এবং একটি মুঠোফোন মাটিতে ফেলে দেয়। এরপর মুঠোফোনটি মাটি থেকে তুলেই বলে আপনি দ্রুত পথ চলতে আমার গায়ে ধাক্কা মেরে মোবাইল ফেলে দিয়েছেন। আমার মোবাইলের গ্লাস ফেটে গেছে। আমাকে ৫ হাজার টাকা দিতে হবে। পরক্ষণেই আরো দু’জন যুবক এসে তার সাথে সঙ্গ দেয়। এরপর ভয়ভীতি দেখিয়ে তার মানিব্যাগ নিয়ে তারমধ্যে থাকা দুই হাজার ৯০০ টাকা নিয়ে নেয়। এরপর মানিব্যাগের মধ্যে থাকা ভিসা কার্ড নিয়ে পুরাতন জেলখানার প্রধান ফটকের ঢালে অবস্থিত ইসলামী ব্যাংকের এটিএম বুথে নিয়ে যায়। সেখানে বাইরে একজনকে রেখে তাকেসহ দুইজন বুথের ভিতরে প্রবেশ করে। এরপর তার নিকট হতে পিনকোড নিয়ে অ্যাকাউন্ট থেকে ১৯ হাজার টাকা তুলে ভিসা কার্ড ও মানিব্যাগ দিয়ে দেয়।

এই ঘটনায় তার অভিযোগের ভিত্তিতে ২৪ ডিসেম্বর চকবাজার মডেল থানায় একটি মামলা রুজু হয়, বলেন উপ-পুলিশ পরিদর্শক কৃষ্ণ পদ মজুমদার।

ছবি বা ভিডিও ফুটেজে প্রদর্শিত ব্যক্তির সম্বন্ধে কোন তথ্য বা সন্ধান জেনে থাকলে চকবাজার জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (০১৭১৩-৩৯৮৪৫১) অথবা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (০১৭১৫-৩৮২০০০) নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা