kalerkantho

শনিবার । ১৮ জানুয়ারি ২০২০। ৪ মাঘ ১৪২৬। ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে একক প্রার্থী দেবে জাতীয় পার্টি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২১:৩৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে একক প্রার্থী দেবে জাতীয় পার্টি

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের বলেছেন, আসন্ন ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এককভাবে প্রার্থী দেবে জাতীয় পার্টি। এজন্য দলের পক্ষ থেকে নেতাকর্মীদের সাথে আলাপ আলোচনা চলছে।

রবিবার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে রংপুর বিভাগ সাংবাদিক সমিতি, ঢাকার (আরডিজেএ) নবনির্বাচিত নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা, আরডিজেএ সভাপতি মোকছুদার রহমান মাকসুদ, সহসভাপতি হিলালী ওয়াদুদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরুল কাওসার ইমন, অর্থ সম্পাদক সিরাজুস সালেকিন, দপ্তর সম্পাদক আখতারুজ্জামান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আরিফ চৌধুরী পলাশ, কার্যনিবাহী সদস্য মাহবুব মমতাজী ও শাফিউল আল ইমরান। 

জিএম কাদের বলেন, আসন্ন দুই ঢাকা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে পার্টির নেতাদের সাথে কথা বলে আমাদের প্রার্থী ঠিক করা হবে। তবে এখনও অনেক সময়ে আছে। প্রাথমিকভাবে নেতাকর্মীদের সাথে আলাপ আলোচনা চলছে।

বর্তমানে মিডিয়ার সমস্যা নিয়ে  সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের দেশে অনেক মিডিয়া হয়েছে। আর মিডিয়ার আয়ের প্রধান উৎস হচ্ছে বিজ্ঞাপন। মিডিয়া যে হারে বাড়ছে বিজ্ঞাপন সেই হারে বাড়েনি। তাই সরকারের উচিৎ মিডিয়াগুলোকে আরো বেশি বিজ্ঞাপন দিয়ে সহায়তা করা। সেই সাথে বিজ্ঞাপনের পরিধি বৃদ্ধি করা। আর এটা করলে মিডিগুলো সংকট থেকে বেরিয়ে আসবে। সেই সাথে নতুন করে মিডিয়ার অনুমোদন দেয়ার বিষয়ে সরকারকে ভাবতে হবে।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব বলেন, জাতীয় পার্টি রংপুর বিভাগের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। জাতীয় সংসদের আসছে অধিবেশনে রংপুরের বেশ কিছু সমস্যা তুলে ধরা হবে। ঢাকা টাঙ্গাইল হাইওয়ের চারলেনের কাজ দীর্ঘদিন ধরে চলছে। এটির কাজ দ্রুত শেষ করতে হবে। এ কাজটা শেষ হলে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি অনেক কমবে বলেও মনে করেন তিনি।

আরডিজেএ সভাপতি বলেন, জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) বৈঠকে পাশ হওয়ার পরও দীর্ঘদিন ধরে সিরাজগঞ্জ হয়ে বগুড়া পর্যন্ত রেললাইন প্রকল্পের কাজ শুরু হচ্ছে না। এ ব্যাপারে সরকারের দৃষ্টিতে আনার জন্য জাতীয় সংসদসহ বিভিন্ন ফোরামে আলোচনা করার আহ্বান জানান তিনি।

আরডিজেএ সাধারণ সম্পাদক বলেন, রংপুর বিভাগের আট জেলার বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিত করে সেগুলো জনগণের সামনে উপস্থাপন করছে আরডিজেএ। সেই সমসাগুলো কিভাবে সমাধান করা যায় সেজন্য সরকারের মন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও বিরোধী দলীয় নেতাদের সাথে আলোচনা করছে। এছাড়া একই ইস্যুতে বিভিন্ন সভা সেমিনার ও মানবন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে আরডিজেএ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা