kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

না-ফেরার দেশে ভাষাসৈনিক রওশন আরা বাচ্চু

অনলাইন ডেস্ক   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৪:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



না-ফেরার দেশে ভাষাসৈনিক রওশন আরা বাচ্চু

চলে গেলেন ভাষা সেনানী রওশন আরা বাচ্চু (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রজিউন)। আজ ৩ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১০টার সময় রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। তিনি বেশকিছুদিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন। তাঁর পরিবার ও হাসপাতালসূত্র মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।   

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে রওশন আরা বাচ্চু সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। তখন তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের ছাত্রী ছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের সংগঠিত করা ছাড়াও অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও হলের ছাত্রীদের ভাষা আন্দোলনের পক্ষে সুসংগঠিত করেন। একুশে ফেব্রুয়ারি ১৪৪ ধারা ভঙ্গকারী প্রথম ছাত্রীদলের অন্যতম সদস্য ছিলেন ভাষা সংগ্রামী এই নারী।

ভাষাসৈনিক রওশন আরা বাচ্চু ১৯৩২ সালের ১৭ ডিসেম্বর সিলেটের কুলাউড়ার উছলাপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। বাবা এ এম আরেফ আলী, মা মনিরুন্নেসা খাতুন। ১৯৪৭ সালে রওশন আরা বাচ্চু শিলং লেডি কিন স্কুল থেকে এসএসসি, ১৯৪৯ সালে বরিশাল বিএম কলেজ থেকে এইচএসসি, ১৯৫৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দর্শনে অনার্স পাস করেন। ১৯৬৫ সালে বিএড এবং ১৯৭৪ সালে ইতিহাসে এমএ পাস করেন। রওশন আরা বাচ্চু 'গণতান্ত্রিক প্রগ্রেসিভ ফ্রন্ট' এ যোগ দিয়ে ছাত্র রাজনীতি শুরু করেন। তিনি সলিমুল্লাহ মুসলিম হল এবং উইম্যান স্টুডেন্টস্ রেসিডেন্স এর সদস্য নির্বাচিত হন।

পরিবারসূত্র জানায়, সর্বজনের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কিছুক্ষণের মধ্যেই তাঁর মরদেহ বাংলা একাডেমিতে নিয়ে যাওয়া হবে।  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা