kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

সমকামিতার ফাঁদে ফেলে অপহরণ করতো তারা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সমকামিতার ফাঁদে ফেলে অপহরণ করতো তারা!

সমকামিতার ফাঁদে ফেলে বিভিন্ন মানুষকে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের একটি চক্রের তিন সদস্যকে অস্ত্রসহ আটক করেছে র‌্যাব।

বুধবার গভীর রাতে সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার মিজমিজি এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- জসিম উদ্দিন, ইব্রাহিম ও মহিউদ্দিন। এ সময় তাদের কাছ থেকে তিন রাউন্ড গুলিভর্তি ম্যাগজিনসহ একটি বিদেশি পিস্তল ও দুইটি চাপাতি জব্দ করে র‌্যাব।

বুহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব-১১ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আলেপ উদ্দিন প্রেসবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

র‌্যাব-১১ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আলেপ উদ্দিন আরো জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধানে ও জিজ্ঞাসাবাদের জানা গেছে, আটককৃতরা সমকামী ও সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন ভূয়া আইডি ও সমকামী গ্রুপ খুলে বিভিন্ন ধরনের উত্তেজনাকর পোষ্ট দিয়ে থাকে। এতে আকৃষ্ট হয়ে বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ সাড়া দেয়। এ সুযোগে সুকৌশলে তাদের নারায়ণগঞ্জে ডেকে নিয়ে অপহরণ ও অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সর্বস্ব লুট করে নেয়। পাশাপাশি তাদের মুক্তিপণ বাবদ পরিবারের কাছ থেকে বিকাশের মাধ্যমেও বিপুল অংকের অর্থ আদায় করে থাকে। এই অভিনব কৌশলে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের ঘটনাগুলো ভুক্তভোগীরা বেশিরভাগ সময় লোকলজ্জার ভয়ে আইনের আশ্রয় নেয়া থেকে বিরত থাকে। এ কারণে এসব অপরাধের ঘটনা চাপা পড়ে যায়।

আলেপ উদ্দিন জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের সুফিয়ান নামের এক সন্ত্রাসী এই চক্রের মূল হোতা। সে নেপথ্যে থেকে দীর্ঘদিন যাবৎ এই অপরাধী চক্রটিকে পরিচালনা করে আসছিল। র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারিতে এসব তথ্য বেরিয়ে আসার পর সন্ত্রাসী সুফিয়ান আত্মগোপনে থেকে তার বাহিনী দ্বারা অপরাধ কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণ করে আসছে।

আটককৃত তিনজন জিজ্ঞাসাবাদে এই বিষয়গুলো স্বীকারও করেছে। এই চক্রের মূল হোতা সন্ত্রাসী সুফিয়ানকে গ্রেফতারের চেষ্টাসহ আটককৃত আসামীদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা