kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

যা রটে, কিছু সত্য বটে : পরিকল্পনামন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ নভেম্বর, ২০১৯ ২২:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যা রটে, কিছু সত্য বটে : পরিকল্পনামন্ত্রী

মানুষ আমাদের নিয়ে হাসাহাসি করে।  সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের ক্রয় নিয়ে লজ্জার সব খবর বেরোয়। মাঝে মাঝে অতিরঞ্জিতও হতে পারে। কিন্তু যা রটে, কিছু সত্য বটে। কিছু ঘটনা তো আছেই, অস্বীকার করার উপায় নেই। এমন মন্তব্য করে এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদের খুব সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

বুধবার ময়মনসিংহ বিভাগে বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি-সংক্রান্ত পর্যালোচনা সভায় উন্নয়ন প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের সতর্ক হওয়ার এই পরামর্শ দেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

প্রকল্পের উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনায় (ডিপিপি) আইটেম ধরে খরচ খতিয়ে দেখা হচ্ছে জানিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আগে থোক বরাদ্দ থাক, থোক-ফোক আমরা উড়িয়ে দেব। কোনো থোক গ্রহণ করা হবে না। প্রত্যেক আইটেম বিস্তারিত বলতে হবে। কয়টা খাট, কয়টা গাড়ি, কয়টা বিদেশি ট্রিপ, কোথায়, ইউনিক মূল্য উল্লেখ করতে হবে। মূল্য আমরাও জানি। একটা খাটের দাম কত হতে পারে, এটা আমাদেরও আইডিয়া আছে। এগুলো আমরাও খোঁজ নেব।’

তিনি বলেন, ‘এগুলো কাউকে ধরার জন্য নয়। মানুষের কাছে আমাদের লজ্জাটা কমাতে হবে। মানুষ হাসাহাসি করে আমাদের নিয়ে। কোনো কোনো মানুষ বিরক্তিকর শব্দ ব্যবহার করে আমাদের জন্য। ওসব শব্দ আমরা চাই না।’

সাধারণ মানুষের কল্যাণে আসে না এমন প্রকল্পকে নিরুৎসাহিত করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, ‘সাধারণ মানুষের কল্যাণের জন্য নয়- এমন সব উন্নয়ন প্রকল্প পেপার ওয়েট দিয়ে যে কদিন পারি চাপা দিয়ে রাখব। সাধারণ মানুষের কল্যাণে আসে, এমন প্রকল্প নিয়ে আসেন। প্রধানমন্ত্রী সেসব প্রকল্পের অনুমোদন দেয়ার জন্য বসে আছেন। আরও বেশি প্রকল্প নিয়ে আসেন।’

উপস্থিত প্রকল্প পরিচালকদের কাছে প্রকল্পের অতীতের তুলনায় বেশি বাস্তবায়নের হার উপহার চান পরিকল্পনামন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘আপনাদের কাছে আমার আবেদন, বাস্তবায়নের হারে পরিবর্তন আনেন। বেশি বাস্তবায়ন দেখান। এটা আমাকে উপহার দেন। পাবলিক যেন মনে করে, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে পরিবর্তন আসছে। আমরাও তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা