kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

বদ্ধমূল নানা ধারণাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে ‘অ্যাগেইনস্ট দ্য উইন্ড’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:৪৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বদ্ধমূল নানা ধারণাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে ‘অ্যাগেইনস্ট দ্য উইন্ড’

রাজধানীর বনানী ক্লাবে রবিবার অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ‘অ্যাগেইনস্ট দ্য উইন্ড’ শীর্ষক ভিন্নধর্মী এক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে কস্টুমেয়ার বাই জুবাইদা আহবাব। নারী সৌন্দর্য নিয়ে আমাদের সমাজে নানা বদ্ধমূল ধারণাকে অসঙ্গত প্রমাণে এ অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়।

অনুষ্ঠানে সফল ১২ জন নারী তাদের জীবনের নানা প্রতিকূলতাকে উতরে কীভাবে তাদের নিজেদের কাঙ্ক্ষিত অবস্থানে পৌঁছেছেন সে গল্পগুলো অতিথিদের সামনে বলেন। কীভাবে তারা তাদের চারপাশের সকল বাধাকে প্রতিহত করে সামনে এগিয়ে গিয়েছেন সে গল্প তারা নিজেরাই অতিথিদের সামনে উপস্থাপন করেন।

অংশগ্রহণকারী নারীরা হলেন সাবেক সংবাদ পাঠিকা নওরীন আহমেদ, ফারজানা আলী, অর্থনীতিবিদ ও ঘাসফড়িং কয়্যারের সদস্য নূর ই রাজিয়া মোমো, ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটির বায়োকেমিস্ট্রি ও বায়োটেকনোলজি বিভাগের ২০ বছর বয়সী শিক্ষার্থী রামিসা নওশীন, উদ্যোক্তা ও দ্য পাউডার রুম ও কেপটাউনের সত্ত্বাধিকারী এশা রুশদি, বডি ইমেজ অ্যাকটিভিস্ট জাইরাহ হাবিব, বাংলাদেশ সেন্টার অব অ্যাডভান্স স্টাডিজের গবেষণা কর্মকর্তা প্রিয়া চৌধুরী, অ্যাপোলো হাসপাতাল ঢাকার ডার্মাটোলজি বিভাগের কনসালট্যান্ট ড. রুবাইয়া আলী, মডেল ও ফিলানথ্রোপিস্ট শ্রাবন্তী, কনটেন্ট প্রডিসার ও শিল্পী ঊর্মি রহমান মিষ্টি এবং সুমাইয়া। ডিজাইনার জুবাইদা আহবাবের ডিজাইনকৃত পোশাকে তারা মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে নীরবতাকে অনুৎসাহিত করে জীবনকে নতুনভাবে দেখতে আহ্বান জানানো হয়। গল্পগুলোর মাধ্যমে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী বলেন যে, ‘না’ শব্দটি এতো ছোট একটি শব্দ হয়েও কীভাবে হাজার হাজার স্বপ্নকে অঙ্কুরেই বিনষ্ট করে দেয়। ভয়কে জয় করে যেসব নারী তাদের স্বপ্নের পেছনে ছুটেছেন তাদের জন্যই আয়োজিত হয় ‘অ্যাগেইনস্ট দ্য উইন্ড’। এ অনুষ্ঠানে আয়োজকরা এমন সব নারীকেই তাদের গল্পগুলো সবার সামনে তুলে ধরার আমন্ত্রণ জানান যারা জীবনে নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও সামনে এগিয়ে গিয়েছেন।

এ আয়োজন নিয়ে ডিজাইনার জুবাইদা আহবাব বলেন, নিজেকে ভালোবাসা, নিজেকে গ্রহণ করা এবং নারীর ক্ষমতায়নকে উৎসাহিত করতেই এ অনুষ্ঠানের আয়োজন। যাতে করে নারীরা নিজেদের ভালোবাসতে পারে কেননা আমরা বিশ্বাস করি প্রতিটি মানুষই সুন্দর। তার গায়ের রঙ ও তার আকৃতি যেমনই হোক না কেনো। অনুষ্ঠানে সবার উপস্থিতিতে আমরা অভিভূত। এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমরা চেয়েছিলাম সৌন্দর্য নিয়ে আমাদের চারপাশের বিদ্যমান নানা কুসংস্কার ও বদ্ধমূল ধারণাকে প্রশ্ন করতে।

অ্যাকাউন্টিং-এ নিজের স্নাতক সম্পন্ন করলেও পেশাগতভাবে নিজেকে তার স্বপ্নের ডিজাইনার হিসেবেই প্রতিষ্ঠিত করেছে জুবাইদা আহবাব। দেশ ও দেশের বাইরে তিনি তার ডিজাইন নিয়ে অংশগ্রহণ করেছেন এবং ফ্যাশন ও স্টাইল নিয়ে নিজস্ব ভাবনার কারণে প্রশংসিত হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা