kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

নতুন নেতৃত্ব নিয়ে আসছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৫৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নতুন নেতৃত্ব নিয়ে আসছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ

মেয়াদোত্তীর্ণসহ অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত থানা, ইউনিট ও কলেজ শাখা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন নেতৃত্ব নিয়ে আসছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ। ইতোধ্যে ২১টি থানার ৮টি ও ৫টি কলেজের ১টি ও ১টি মাদ্রাসা কমিটির বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে সংগঠনটি। গতকাল শনিবার এ তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান। একইসাথে ক্লিন ইমেজ ও আওয়ামী লীগ পরিবারের ছাত্র নেতাদের কর্ম-দক্ষতা দেখে কমিটিতে তাদের প্রাধান্য দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

জানা গেছে, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের ২১টি থানা কমিটির মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ শাজাহানপুর, কোতোয়ালী, বংশাল, শ্যামপুর, পল্টন, চকবাজার, রমনা ও মতিঝিল এবং সিদ্বেশ্বরী ডিগ্রি কলেজ ও সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে। এদিকে, মেয়াদোত্তীর্ণ ও অনৈতিক কর্মকা-ের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগের প্রেক্ষিতে ১০টি কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণার পর ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমেদকে নিয়ে ওইসব কমিটির একাংশ নেতারা ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র চালাচ্ছেন। তারা এখানেই ক্ষান্ত হননি। বিভিন্ন মাধ্যমে সভাপতি মেহেদী হাসান ও সম্পাদক জুবায়ের আহমেদকে হুমকি-ধমকিও দিয়ে আসছেন।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান বলেন, মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের যেসব শাখার মেয়াদোত্তীর্ণ, ওইসব কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছি। কারণ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী দলসহ সব ক্ষেত্রে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম মেয়াদোত্তীর্ণ সংগঠনগুলোর কাউন্সিল করার নির্দেশ দিয়েছেন। এরই অংশ হিসেবে নগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের যেসব শাখার মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে, সেগুলো বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করার চেষ্টা করছি। কিন্তু একটি স্বার্থান্বেষী মহল আমাদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র চালাচ্ছেন। যেটি আমাদের জন্য খুবই বিব্রতকর। 

তিনি বলেন, আমরা চাই মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত করে যাদের বিরুদ্ধে কোনো অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ নেই এবং আওয়ামী লীগের পরিবারের সদস্য তাদের মধ্য থেকে নতুন নেতৃত্ব আনতে। একই সাথে যাদের ছাত্রত্ব আছে, তাদের সামনে নিয়ে আসতে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যা চান, তার বাইরে যাওয়ার আমাদের কোনো সুযোগ নেই। 

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমেদ বলেন, ছাত্রলীগের সাংগঠনিক অভিভাবক আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি চান মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন নেতৃত্ব ওঠে আসুক। সেইদিক বিবেচনা করেই আমরা মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে দিয়েছি। খুব শিগগিরই কমিটি দিয়ে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচিত করা হবে। কিন্তু একটি অংশ নেতৃত্ব হারিয়ে আমাদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার করার চেষ্টা করছেন। তবে এতে কিছু যায় আসে না, আমরা প্রধানমন্ত্রীর চাওয়া পূরণ করার চেষ্টা করছি মাত্র।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা