kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

সংবাদ সম্মেলনে হকার নেতৃবৃন্দ

হকারদের ওপর নির্যাতন ও গ্রেপ্তার বাণিজ্য বন্ধ কর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হকারদের ওপর নির্যাতন ও গ্রেপ্তার বাণিজ্য বন্ধ কর

হকার নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার, হকারদের ওপর দমন-পীড়ন-নির্যাতন-মামলা-হামলা মালামালা নষ্ট-লুটপাট-চাঁদাবাজি এবং গ্রেপ্তার বাণিজ্য বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়ন। আজ শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়।

রাজধানীর পুরানা পল্টনস্থ মুক্তিভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াৎ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি আব্দুল হাশিম কবির, সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জসিম উদ্দিন, কেন্দ্রীয় নেত্রী শাহিনা আক্তার, মো. ফিরোজ, শহিদ খান, আফছার হোসেন, হারুন-অর-রশীদ, বিমল বাবু প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মামলা ও গ্রেপ্তার বাণিজ্যের প্রতিবাদে কাল রবিবার বেলা ১২টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ এবং আগামী ১৮ নভেম্বর সোমবার থেকে লাগাতার সভা-সমাবেশ-পদযাত্রার কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়।

লিখিত বক্তব্যে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াৎ বলেন, এ বছরে জানুয়ারি মাস থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত দীর্ঘ ৪ মাস হকাররা ধারাবাহিকভাবে সুশৃঙ্খল আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে বিজয় অর্জন করে। এরপর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী দুই সিটি কর্পোরেশন ও ডিএমপির সাবেক কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া শুক্র ও শনিবার পূর্ণ দিবস এবং বাকি ৫ দিন বেলা ৩টা থেকে হকারদের ফুটপাতে ব্যবসা করার সুযোগ করে দেন। হকাররাও নিয়ম মেনে শৃংখলার সাথে জীবন-জীবিকা করে আসছিলেন। কিন্তু ক্যাসিনো হোতাদের গ্রেপ্তারের জন্য শুদ্ধি অভিযান শুরু হলে পুলিশ প্রশাসন হঠাৎ করে নগরীর ফুটপাতের হকারদের ওপর চড়াও হয়। বর্তমানে ঢাকা শহরের ফুটপাতের হকারদের ওপর পুলিশ প্রশাসনের নির্মম নিষ্ঠুর অভিযান চলছে। উচ্ছেদের নামে প্রতিদিন ব্যাপক ভাঙচুর মালামাল নষ্ট, লুটপাট, মামলা-হামলা-গ্রেপ্তার চলছে। এটা বন্ধের দাবি জানান তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা