kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

খালেদার মুক্তি দাবি

রাজধানীতে মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম দলের বিক্ষোভ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ১৫:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীতে মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম দলের বিক্ষোভ

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম দল। আজ শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সকালে নয়াপল্টনে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে  নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয় বিক্ষোভ মিছিল। মিছিলটি নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে পুনরায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

এ সময় রিজভী তাঁর বক্তব্যে অবিলম্বে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেন। এ ছাড়া সরকারের কঠোর সমালোচনা করে পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধির জন্য সরকারকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, পেঁয়াজের পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকার পরও ক্ষমতাসীন দলের সিন্ডিকেটের কারণে পেঁয়াজের কেজি দেড় শতকের পর ডাবল সেঞ্চুরি পেরিয়েছে। গতকাল যোগ হয়েছে আরও ৪০ টাকা। ২৪০ টাকা ছাড়িয়েও থামেনি দাম। দাম আর কত বাড়বে এই নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারছেন না।

বিএনপির এই নেতা বলেন, সরকারের মন্ত্রী এমপিদের বক্তব্য সিন্ডিকেটকে উসকে দিচ্ছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী গতবছর থেকে এখন পর্যন্ত যে পরিমাণ পেঁয়াজ দেশে আছে, তা চাহিদার চেয়ে অনেক বেশি। তাহলে এভাবে লাগামহীনভাবে পেঁয়াজের দাম বাড়ছে কেন? রাজধানীর খুচরা বাজারে, পাড়া-মহল্লার দোকানগুলোতে পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজি ২৪০ টাকা ছাড়িয়েছে।

রিজভী বলেন, এই পরিস্থিতিতে দেশের জনগণ মনে করে পেঁয়াজ নিয়ে যে সিন্ডিকেট লুটতরাজ চলছে, তার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কোনো কোনো মন্ত্রী-এমপি সরাসরি জড়িত। এ কারণে পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে কঠোর পদক্ষেপ না নিয়ে বিভ্রান্তিমূলক কথাবার্তা বলছে। অবিলম্বে আমরা ব্যর্থ মন্ত্রীদের পাশাপাশি সরকারের পদত্যাগ দাবি করছি।

কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে অংশ নেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম দলের সভাপতি শামা ওবায়েদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সাইফুল ইসলাম পটু প্রমুখ। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা