kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

ছাত্রত্ব বাতিল হচ্ছে বুয়েটের ২৫ শিক্ষার্থীর

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ১৯:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছাত্রত্ব বাতিল হচ্ছে বুয়েটের ২৫ শিক্ষার্থীর

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার হত্যার ঘটনায় চার্জশিটভূক্ত হয়েছেন ২৫ শিক্ষার্থী। তাদের অভিযুক্ত করে বুধবার আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ। এসব শিক্ষার্থীদের ব্যাপারে একাডেমিক ব্যবস্থা গ্রহন প্রক্রিয়াধীন। সহসাই তাদের বিরুদ্ধে 'আজীবন ছাত্রত্ব বাতিলের' সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানা গেছে।

আবরার হত্যার চার্জশিট দাখিলের পর বুয়েট প্রশাসনের পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে যোগাযোগ করা হয় ছাত্রকল্যাণ পরিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমানের সাথে। তিনি কালের কন্ঠকে বলেন, 'বুয়েট প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনজীবীর মাধ্যমে চার্জশিটের কপি তোলার চেষ্টা করছে। চার্জশিটের কপি আমাদের হাতে পৌছালে সেটা তদন্ত কমিটির কাছে যাবে। তদন্ত কমিটির সুপারিশ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিসিপ্লিনারী বোর্ড বসবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি অনুযায়ী বোর্ড ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। আশা করছি আগামী সপ্তাহে অভিযুক্তদের বিষয়ে একাডেমিক সিদ্ধান্ত নিতে পারবো।'

কি শাস্তি হতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, 'অভিযোগপত্র হাতে পেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইতোমধ্যে আমরা ১৯ জনকে সাময়িক বহিস্কার করেছি। শিক্ষার্থীদের একটা দাবি রয়েছে অভিযুক্তদের স্থায়ী বহিস্কারের। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধিতে স্থায়ী বহিস্কার বলে কোন টার্ম নেই। তবে  আজীবন ছাত্রত্ব বাতিলের বিষয়টি রয়েছে। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়টি মাথায় রেখেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।'

এদিকে চার্জশিটভুক্ত আসামিদের বুয়েট থেকে স্থায়ী বহিস্কার না করা পর্যন্ত ক্লাসে ফিরবেন না বলে জানিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার তারা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানাবেন।
মেকানিক্যাল ১৫ ব্যাচের এক শিক্ষার্থী কালের কন্ঠকে বলেন, 'আমরা আগের অবস্থানে অনঢ় রয়েছি। যতক্ষণ পর্যন্ত আসামিদের স্থায়ী বহিস্কার না করা হবে ততক্ষণ পযর্ন্ত আমরা ক্লাসে ফিরছি না। আমাদের দশটি দাবির মধ্যে তিনটি দাবির পূর্নাঙ্গ বাস্তবায়ন হলেই আমরা ক্লাসে ফিরবো।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা