kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

রাঙ্গার উদ্দেশে সেতুমন্ত্রী

বিষাক্ত কটূক্তি করে সীমা লঙ্ঘন করবেন না

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:১৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিষাক্ত কটূক্তি করে সীমা লঙ্ঘন করবেন না

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জাপা মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গার উদ্দেশ্য বলেছেন, বিষাক্ত কটূক্তি করে সীমা লঙ্ঘন করবেন না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নূর হোসেনকে কটাক্ষ করলে জনগণ ক্ষমা করবে না। একবার মুখ ফসকে গেলে যতই ‘সরি’ বলুন কাজে আসবে না।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে (কেআইবি) ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনা ও নূর হোসেনকে নিয়ে কেউ কেউ কটাক্ষ করছেন। এ ধরনের কটাক্ষ রাজনৈতিক অনুভূতিতে আঘাত করে। ষড়যন্ত্রকারীদের ষড়যন্ত্র এখনও চলছে। তাদের ষড়যন্ত্র থেমে নেই। অনেকেই শেখ হাসিনা সম্পর্কে ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। এরকম বক্তব্য সহ্য করা হবে না। এরকম কটাক্ষ রাজনৈতিক পরিবেশকে নষ্ট করে।

কাদের বলেন, নূর হোসেনকে হত্যার মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রকে হত্যার চেষ্টা কারা করেছিলেন সেটা জাতি জানে। সেই নূর হোসেনকে অশ্রাব্য ভাষায় কটাক্ষ করা হয়েছে। আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আদালতে অক্সিজেন নিয়ে যারা রাজনীতিতে অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছে তারা আজ নেত্রীকে কটাক্ষ করে। কথা মুখ থেকে একবার ফসকে গেলে মুখে আর ফিরে আসে না, যতো সরিই বলুন না কেন।

উল্লেখ্য, গত রবিবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে জাপা চেয়ারম্যানের বনানী অফিস মিলনায়তনে জাপা মহানগর উত্তরের আয়োজনে ‘গণতন্ত্র দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় দেয়া বক্তব্যে রাঙ্গা বলেন, ‘নূর হোসেন ইয়াবাখোর, ফেনসিডিলখোর ছিলেন। যারা গণতন্ত্রের ‘গ’-ও বুঝে না, সেই অ্যাডিক্টেড ছেলেকে নিয়ে নাচানাচি করছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। তাদের কাছে ইয়াবা-ফেনসিডিলখোর ও ক্যাসিনো ব্যবসায়ীদের গুরুত্ব বেশি। এরশাদ সাহেবের কাছে এরা কোনও গুরুত্ব পায়নি।

রাঙ্গার এই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার জন্ম হয়। এরইমধ্যে নিজের বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি।

এ সময় তিনি স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রসংশা করে বলেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সব সময়ই সুসংবদ্ধ। বরাবরই আমাদের যেকোনো বড় আয়োজনে শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব তাদের থাকে। আমাদের নেত্রী আপনাদের ওপর খুশি। এখানে সম্মেলনে এসে আমার মনে হচ্ছে উত্তরের নয় জাতীয় সম্মেলনে চলে এসেছি।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, শুদ্ধি অভিযানের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে চলবেন। দলের বিরুদ্ধে কলহ করবেন না। আমরা আদর্শের রাজনীতি করবো। আমরা বঙ্গবন্ধুর কর্মী কেউ ব্যক্তিগত কটূক্তি করবেন না। কটূক্তিকারীকে আমরা সহ্য করবো না।

সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ. ফ. ম. বাহাউদ্দীন নাছিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মূল রঞ্জন গুহ ও সদস্য সচিব গাজী মেসবাউল হোসেন সাচ্চু প্রমুখ। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা