kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অফলোড করে চারজনকে আটক

মানবপাচারের অভিযোগে বিমানকর্মী বরখাস্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানবপাচারের অভিযোগে বিমানকর্মী বরখাস্ত

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের গ্রাউন্ড সার্ভিস সুপারভাইজার কাজী গিয়াস উদ্দীনকে মানবপাচারের অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিমানের পরিচালক (প্রশাসন) জিয়াউদ্দীন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

বরখাস্তের অফিস আদেশে বলা হয়েছে, গ্রাউন্ড সার্ভিস সুপারভাইজার কাজী গিয়াস উদ্দীনের সোমবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ব্যাগেজ সার্ভিস ইউনিটে ডিউটি ছিল। তবে তিনি কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়াই ভোর ৫টা ৪৪ মিনিট থেকে যাত্রী চেক-ইনের দায়িত্ব পালন করেন। সে সময় বিজি-০৮২ ফ্লাইটের যাত্রীদেরও চেক-ইন হচ্ছিল। পরে গিয়াস উদ্দীনের চেক-ইন করা চার যাত্রীকে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা (এনএসআই) সংস্থার সদস্যরা অফলোড করে আটক করেন।

আদেশে আরো বলা হয়, এ ঘটনায় বিমানের ভাবমূর্তি ও সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে। গিয়াস উদ্দীনের আচরণ বিমানের চাকরিবিধির পরিপন্থী ও শাস্তিযোগ্য অপরাধের শামিল। তাকে অসদাচরণের কারণে বিমান কর্মচারী প্রবিধানমালার ৫৮ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে চাকরি থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্ত থাকা সময়ে তাকে বর্তমান ঠিকানায় অবস্থান করতে হবে। বর্তমান ঠিকানা পরিবর্তন করলে বিমান কর্তৃপক্ষকে তা জানাতে হবে। সাময়িক বরখাস্ত থাকা অবস্থায় তাকে প্রশাসন সেল ডিএ শাখায় দৈনিক হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে সূত্র জানায়, মানবপাচারে সহায়তার জন্য কাজী গিয়াস উদ্দীন চেক-ইন কাউন্টারে ছিলেন। পরে তার চেক-ইন করানো চার যাত্রীকে অফলোড করা হয়। তাদের পাচারের চেষ্টা করা হচ্ছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা