kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কাউন্সিলর পদ হারালেন সাঈদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ২২:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাউন্সিলর পদ হারালেন সাঈদ

ক্যাসিনো বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগ ওঠায় কাউন্সিলর পদ হারালের ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর একেএম মমিনুল হক সাঈদ।

আজ বৃহস্পতিবার মতিঝিল এলাকার এই কাউন্সিলরকে অপসারণ করে আদেশ জারি করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

আদেশে বলা হয়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে অভিযোগ পাওয়া গেছে, মমিনুল হক যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়া করপোরেশনের ১৮টি সভার মধ্যে ১৩টি সভায় অনুপস্থিত ছিলেন। এর মধ্যে প্রথম থেকে তৃতীয় সভায় একনাগাড়ে তিনবার, সপ্তম থেকে দশম সভায় চারবার ও ১২ থেকে ১৭তম সভায় ছয়বার অনুপস্থিত ছিলেন।

এতে আরো বলা হয়, কাউন্সিলর সাঈদ স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন ছাড়া বিদেশে গমন ও অবস্থান করেছেন। এসব বিষয়ে আত্মপক্ষ সমর্থনে জবাব দেওয়ার জন্য তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আত্মপক্ষ সমর্থনে যৌক্তিক প্রমাণ উপস্থাপন করতে পারেননি।

তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো সরেজমিন তদন্তের জন্য সরকার একজন তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োজিত করে। সেই তদন্ত প্রতিবেদনে অভিযোগগুলো প্রমাণিত হয়েছে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।

এসব কর্মকাণ্ডকে ‘স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯’ অনুযায়ী কাউন্সিলর পদ থেকে অপসারণযোগ্য অপরাধ। এতে বলা হয়, আইনের ধারা ১৩ এর উপ-ধারা (২) অনুযায়ী মমিনুল হককে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৯ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদ থেকেঅপসারণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ফকিরাপুলের ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে নিয়মিত ক্যাসিনো, জুয়া, মাদকের আসর বসতো, যা চালাতেন মমিনুল। র‌্যাবের অভিযানের পরপরই মমিনুল হক সিঙ্গাপুর পালিয়ে গেছেন।

অবৈধভাবে ক্যাসিনো পরিচালনায় এরই মধ্যে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট ও সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যুবলীগের পদ থেকেও তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা