kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আমার ছেলে নির্দোষ : সম্রাটের মা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ১৫:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমার ছেলে নির্দোষ : সম্রাটের মা

ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেপ্তার যুবলীগ নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের মুক্তি চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তার মা সায়েরা খাতুন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, আমার ছেলে নির্দোষ, আমার ছেলেকে ছেড়ে দিন। ওকে চিকিৎসা করাতে দিন।

আজ রবিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে সম্রাটের মুক্তি চেয়ে তিনি সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে সম্রাটের মায়ের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মেয়ে ফারহানা চৌধুরী শিরিন, সঙ্গে ছিলেন ছেলে রাশেদ আহমেদ চৌধুরী। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গ্রেপ্তারের ১০ দিন আগে থেকে অফিসে ছিলেন না সাবেক যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট। অফিস ছিল অরক্ষিত। শরীর খারাপ থাকায় অন্য জায়গায় ছিলেন তিনি। তাই, অফিসে মদ, ইয়াবা, পিস্তল কিছুই ছিল না। এটি পরিকল্পিত সাজানো নাটক বলে দাবি করেন সম্রাটের স্বজনেরা।

সায়েরা খাতুন বলেন, মদ্যপান সম্রাটের মৃত্যুর কারণ হতে পারে বলে ডাক্তার সতর্ক করেছিল। তাই সে জেনেশুনে কখনো মদ পান করবে না। সম্রাট গ্রেপ্তারের ১০ দিন আগে থেকে সে কাকরাইলের অফিসেই ছিল না, অফিস ছিল অরক্ষিত। শরীর খারাপ থাকায় অন্য যায়গায় অবস্থান করছিল।

সম্রাটের মা বলনে, এমনকি সম্রাটকে নিয়ে অফিসের ভিতরে প্রবেশের সময় বিভিন্ন মিডিয়ায় লাইভ সম্প্রচারে দেখা গেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কিছু লোক কাঁধে ব্যাগ নিয়ে প্রবেশ করে এবং অফিস থেকে বের হওয়ার সময় ওই ব্যাগগুলো লক্ষ্য করা যায়নি।

তিনি দাবি করেন , ক্যাঙ্গারু বাংলাদেশি বন্যপ্রাণী নয় এবং বাংলাদেশে এই প্রাণীটির বিচরণ দেখা যায় না। যেহেতু ক্যাঙ্গারুটি বাংলাদেশে শিকার করা হয়নি এটি বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনের মধ্যে পড়ে না।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে সায়েরা খাতুন বলেন, আপনি মমতাময়ী জননী, মানবতার মা। সম্রাট আপনার কর্মী, আপনার সন্তানতুল্য সংগঠনে অনুপ্রবেশকারী নয়। একজন মা হিসেবে আপনার কাছে আবেদন করছি, ভুল-ত্রুটি ক্ষমা করে সম্রাটকে মুক্ত করে দিন। তার উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দিন। আমার সন্তানের জীবন রক্ষা করুন।

এ সময় জানানো হয়, ঢাকা শহরে প্রতিটি ক্লাব পরিচালনার জন্য কমিটি রয়েছে। এগুলো প্রতিবছর ডাক দেওয়া হয়। সম্রাট কোনো ক্লাবের কমিটিতে ছিলেন না। শুধু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে ও ব্যক্তিগত আক্রোশে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তাকে জড়ানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা