kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শুল্ক ফাঁকি ও অর্থ পাচার মামলা

মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ নভেম্বর

   

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ১৩:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ নভেম্বর

শুল্ক ফাঁকি ও সুইস ব্যাংকে টাকা জমা রাখার অস্বচ্ছ হিসাব দাখিলের অভিযোগে ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের সময়সীমা আবারো বাড়ানো হয়েছে।

আজ রবিবার (১৩ অক্টোবর) ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ধার্য তারিখে প্রতিবেদন দাখিল না হওয়ায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী আগামী ১২ নভেম্বর দিন ধার্য করেন। দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে শুল্ক গোয়েন্দা সংস্থা এই মামলার তদন্ত করছে। কিন্তু তদন্ত শেষ হয়নি।

২০১৭ সালের ৩১ জুলাই গুলশান থানায় মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে শুল্ক গোয়েন্দ দপ্তরের রাজস্ব কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন বাদী হয়ে এই মামলাটি দায়ের করেন।

মুসার বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগ পেয়ে প্রাথমিকভাবে অনুসন্ধান করে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর। অনুসন্ধান কর্মকর্তার জিজ্ঞাসাবাদে মুসা লিখিতভাবে জানান, সুইস ব্যাংকে তার ৯৬ হাজার কোটি টাকা রয়েছে। কিন্তু ওই টাকার উৎস সম্পর্কে সঠিক তথ্য দিতে পারেননি মুসা।

এদিকে, মুসার গুলশানের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি রেঞ্জ রোভার গাড়িও জব্দ করে গোয়েন্দারা। ১৭ লাখ টাকা শুল্ক পরিশোধ দেখিয়ে ভুয়া 'বিল অব এন্ট্রি' প্রদর্শন করে গাড়িটি বেনামে রেজিস্ট্রেশন করা হয় বলে গোয়েন্দারা দাবি করেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা