kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

অবৈধ ভর্তি বাতিলের দাবি সাদা দলের

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৩:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অবৈধ ভর্তি বাতিলের দাবি সাদা দলের

ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সান্ধ্য কোর্সে নিয়ম অনুসরণ না করেই ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবি জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল। একই সঙ্গে ভর্তিপ্রক্রিয়ায় জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছেন সংগঠনটি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এক মানববন্ধনে এই দাবি জানান এসব শিক্ষক। মানববন্ধন শেষে বিচারের দাবিতে উপাচার্য বরাবর একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়। 

সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক এ বি এম ওবায়দুল ইসলামের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে সাদা দলের সাবেক আহ্বায়ক ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম, সাবেক আহ্বায়ক এবং মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আখতার হোসেন খান, যুগ্ম আহ্বায়ক ও পরিসংখ্যান বিভাগের চেয়ারম্যান লুত্ফর রহমান, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো হাসানুজ্জামান, ফিন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক সিদ্দিকুর রহমান খান প্রমুখ বক্তব্য দেন। 

সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রচলিত যেকোনো কোর্সের কারিকুলাম, ব্যবস্থাপনা ও ভর্তিপ্রক্রিয়ার শর্তাবলি নির্ধারণে চূড়ান্ত অনুমোদনের কর্তৃত্ব বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের।

এ ক্ষেত্রে কোনো পরিবর্তন-পরিমার্জনের প্রয়োজন হলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ বা প্রগ্রামের পক্ষ থেকে সুপারিশ আকারে প্রস্তাব আসতে পারে। সেই সুপারিশ অনুষদ সভা, ডিনস কমিটি ও বোর্ড অব অ্যাডভান্স স্টাডিজ হয়ে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য একাডেমিক কাউন্সিল সভায় উপস্থাপিত হয়। 

কাউন্সিল অনুমোদন দিলে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে তা বিধিবদ্ধ হয়। কিন্তু ৩৪ জনের ক্ষেত্রে এই নিয়ম অনুসরণ না করায় এদের ছাত্রত্ব অবৈধ। তাদের ভর্তির সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা নৈতিক স্খলনের অপরাধে শাস্তি পাওয়ার যোগ্য।

অধ্যাপক মো. হাসানুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের দাবিটি কোনো নির্দিষ্ট দল বা ব্যক্তির নয়, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদন্ত করে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা