kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

ছিনতাইয়ের দায়ে পুলিশের এএসআই ও সাবেক বিজিবি সদস্যের দুই বছরের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছিনতাইয়ের দায়ে পুলিশের এএসআই ও সাবেক বিজিবি সদস্যের দুই বছরের কারাদণ্ড

ছিনতাইয়ের দায়ে রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানা পুলিশের সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) আলমগীর হোসেন ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সাবেক সিপাহী মাছুম বিল্লাহকে দুই বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার মহানগর হাকিম ও দ্রুত বিচার আদালত-৩ এর বিচারক দেবদাস চন্দ্র অধিকারী এই রায় দেন।

কারাদণ্ড ছাড়াও আদালত প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন আদালত। জরিমানার টাকা দিতে ব্যর্থ হলে আরও এক মাসের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে বলে রায়ে বলা হয়েছে। দুই আসামি রায় ঘোষণার সময় আদালতে হাজির ছিলেন। রায়ের পর সাজা পরোয়ানাসহ তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

আদালত রায়ে বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হয়েছে। আসামিরা আইন-শৃঙ্ক্ষলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য হয়েও তারা ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত। এটার শাস্তি হওয়া উচিত।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, এই মামলার এজাহারকারী নড়াইলের নড়াগাতি থানার খাসিয়াল মধ্যপাড়ার মো. হেমায়েত বিশ্বাসের ছেলে মো. ইলিয়াস ২০১৭ সালের ৪ এপ্রিল উত্তরা পশ্চিম থানায় ছয়জনের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগে মামলা করেন। মামলায় বলা হয়, ওইদিন বিকেল ৩টায় তিনি উত্তরা পূর্ব থানার রাজলক্ষী মার্কেটের সামনে গাড়ির জন্য দাঁড়িয়েছিলেন। হঠাৎ একটি প্রাইভেট কার থেকে কয়েকজন লোক নেমে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাকে গাড়িতে তুলে নেয়। একপর্যায়ে কালো কাপড় দিয়ে চোখ বেঁধে ফেলে। বাদীর কাছে থাকা মানি এক্সচেঞ্জের ১৮ হাজার ৮০০ ইউএস ডলার ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে তারা।
এ সময় বাদীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন গাড়িটি আটকে বিল্লাহকে ধরে ফেলে। তাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করলে তিনি উত্তরা পূর্ব থানার পুলিশের এএসআই আলমগীরের নাম বলেন। অন্য চারজন পালিয়ে যান। আলমগীরকে পরে গ্রেপ্তার করা হয়। তদন্ত শেষে দুইজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা