kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১            

জবির দ্বিতীয় গেট উন্মুক্ত করতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৮:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জবির দ্বিতীয় গেট উন্মুক্ত করতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ফটকের সামনে অবস্থিত বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা ও লেগুনা স্ট্যান্ড উচ্ছেদ করে গেট উন্মুক্ত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ সময় গেটের দেয়াল ঘেঁষে ফুটপাত গড়ে ওঠা অন্তত ১৫টি অবৈধ দোকান ভাঙচুর করেন তারা। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের ব্যবহারের জন্য দ্বিতীয় গেট ভেঙে ওয়াসী গেট নামকরণের দাবি জানান।

জানা যায়, পূর্ব নির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী মঙ্গলবার সকাল ১১টায় সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে একটি মিছিল বের করে। মিছিল শেষে ক্যাম্পাসের তালাবদ্ধ দ্বিতীয় গেট ভেঙে উন্মুক্ত করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় দ্বিতীয় গেটের আশপাশে অবস্থিত অবৈধ স্থাপনা ভাঙচুর ও উচ্ছেদ করে। এ ছাড়া গত রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় গেট উন্মুক্ত ও লেগুনা স্ট্যান্ড তুলে দিয়েছিল। কিন্তু রবিবার রাতেই আবার দ্বিতীয় গেট বন্ধ করে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সেই সাথে আগের মতো লেগুনা স্ট্যান্ড বসতে দেখা যায়। এ কারণেই আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। উচ্ছেদ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে শিক্ষার্থীরা।

এ সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের আশ্বাস দিলেও তা বাস্তবায়ন করতে তারা বরাবরের মতোই উদাসীন। তাই আমরা নিজ উদ্যোগে উচ্ছেদ অভিযান নেমেছি। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটে কোনোভাবে লেগুনা স্ট্যান্ড থাকতে পারে না। আমরা নিজেদের ক্যাম্পাসকে নিজেরাই পরিস্কার রাখতে কাজ করছি। 

এ সময় তারা আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে আশপাশে কোনো প্রকার চাঁদাবাজি চলবে না। আমরা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পাশাপাশি চাঁদাবাজদেরও উচ্ছেদ করবো। তাদের বিষয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিন্দু মাত্র ছাড় দেবে না।

পরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের সঙ্গে দেখা করে। এ সময় আগামী এক সপ্তাহের ভেতর লেগুনা স্ট্যান্ড সম্পূর্ণভাবে তুলে দিয়ে গেট সংস্কার করে পুরোপুরি অবমুক্ত করার দাবি জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল কালের কণ্ঠকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশে কোনো অবৈধ স্থাপনা থাকুক আমরা এটা চাই না। আমরা এ বিষয়ে প্রশাসনকে চিঠি দিয়েছি। আগামী এক সপ্তাহের আগেই মধ্যে সকল অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে শিক্ষার্থীদের চলাচলের জন্য দ্বিতীয় গেট উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা