kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কারাগার থেকে বের হলেন মিন্নি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কারাগার থেকে বের হলেন মিন্নি

অবশেষে জামিনে মুক্তি পেলেন দেশব্যাপী বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি ও নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। আজ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বরগুনা জেলা কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর ও তার আইনজীবী মাহবুবুল বারী আসলাম। কারাগার থেকে বের হওয়ার পর মিন্নিকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। মিন্নি কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে কারাগার প্রাঙ্গণে উপস্থিত হয় উৎসুক জনতা। কারাগার প্রাঙ্গণে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সদস্যরাও।

এর আগে দুপুর ১২টার দিকে মিন্নির জামিনের আদেশের কপি বরগুনার আদালতে পৌঁছায়। সেখানে আইনি প্রক্রিয়া শেষে জামিনের আদেশের কপি কারাগারে পাঠানো হয়।

মিডিয়ার সঙ্গে কথা না বলাসহ ৩ শর্তে গত ২৯ আগস্ট হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ মিন্নির জামিন মঞ্জুর করেন। তবে মিন্নিকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিনের বিরুদ্ধে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ।

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) মিন্নির জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করলে শুনানিতে বিচারপতি হাসান ফয়েস সিদ্দিকীর চেম্বার আদালত নো অর্ডার দেন। ফলে রিফাত হত্যা মামলায় মিন্নিকে দেওয়া হাইকোর্টের জামিন বহাল থাকে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্য দিবালোকে রাম দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। একাধারে রিফাতকে কুপিয়ে বীরদর্পে অস্ত্র উঁচিয়ে এলাকা ত্যাগ করে হামলাকারীরা। গুরুতর আহত রিফাতকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় ২৭ জুন সকালে নিহতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে প্রথমে ১২ জনের নাম ও বেশ কয়েকজনকে অজ্ঞাত উল্লেখ্য করে বরগুনা সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা