kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

চট্টগ্রামে ডাক্তার আকাশের আত্মহত্যা

মিতুর জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মিতুর জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক মোস্তফা মোরশেদ আকাশের আত্মহত্যা প্ররোচনা অভিযোগের মামলায় তাঁর স্ত্রী তানজিলা হক চৌধুরী মিতুকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

আপিল বিভাগের অবকাশকালীন চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালতে এ আবেদনের ওপর শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হলে আদালত নট টু ডে (আজ নয়) বলে আদেশ দেন। রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জাহিদ সারোয়ার কাজল। মিতুর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন। 

হাইকোর্ট গত ২৮ আগষ্ট মিতুর জামিন মঞ্জুর করেন হাইকোর্ট। জামিন প্রশ্নে জারি করা রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে এক রায়ে মিতুর জামিন মঞ্জুর করা হয়। এই জামিন বাতিলের জন্য রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করেছে। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর এই আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষ।

গত ৩১ জানুয়ারি সকালে নগরের চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার একটি বাসায় ইনজেকশনের মাধ্যমে নিজের শিরায় বিষ প্রয়োগ করে আত্মহত্যা করেন ডা. আকাশ। আত্মহত্যার আগে স্ত্রীর সমালোচনা করে ডা. আকাশ ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে লিখেন, ‘আমাদের দেশে তো ভালোবাসায় চিটিংয়ের শাস্তি নেই। তাই আমিই বিচার করলাম, আর আমি চিরশান্তির পথ বেছে নিলাম।’

এই আত্মহত্যার পর আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে ডা. আকাশের স্ত্রী, শ্যালিকা, দুই বন্ধুসহ ছয়জনকে আসামি করে ১ ফেব্রুয়ারি চান্দগাঁও থানায় মামলা করেন আকাশের মা জোবেদা খানম। এ মামলায় ওই দিন রাতেই রাতে পুলিশ নগরের নন্দনকানন এলাকায় এক আত্মীয়ের বাসা থেকে ডা. মিতু আটক করে। এই মামলায় চট্টগ্রামের আদালতে জামিনের আবেদন করলে আদালত তা খারিজ করে। এরপর হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন ডা. মিতু। জামিন শুনানি নিয়ে আদালত রুল জারি করেন। রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে জামিন মঞ্জুর করে সোমবার রায় দেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা