kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

'সায়েন্স ল্যাবরেটরির ঘটনায় মন্ত্রী টার্গেট ছিলেন না'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৫:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'সায়েন্স ল্যাবরেটরির ঘটনায় মন্ত্রী টার্গেট ছিলেন না'

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রাজধানীর সায়েন্স ল্যাবরেটরি এলাকায় পুলিশের ওপর বোমা হামলার ঘটনা বড় কোনো হামলার টেস্ট কেস হতে পারে। এরা ছোটখাট ঘটনা দিয়ে বড় ধরনের হামলার টেস্ট কেস ঘটাতে পারে। পুলিশের ওপর তিন চারটি হামলার সিস্টেমকে পরবর্তীতে বড় ধরনের হামলার ঘটনার টেস্ট কেস হিসেবে নিতে পারে। তবে পুলিশ ও গোয়েন্দাদের তৎপরতা বেড়েছে।

আজ রবিবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গোয়েন্দাদের কাছ থেকে জানা গেছে, এটি একটি রিমোর্ট কন্ট্রোল হামলা। বিষয়টি গোয়েন্দারা দেখছেন, তদন্ত চলছে। পুলিশের তৎপরতাও বেড়েছে। আর আমাদের দেশে জঙ্গিরা হলি আর্টিজান, শোলাকিয়ায় হামলার পর আরো কিছু বিদেশির ওপর হামলা করেছে।

দেশে জঙ্গি আছে কিনা, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, অবশ্যই জঙ্গি আছে। তবে তারা দুর্বল হয়েছে, নির্মূল হয়েছে এ কথা তো আমরা বলিনি। জঙ্গি সমস্যা শুধু বাংলাদেশের নয়, এটি একটি বৈশ্বিক সমস্যা।

বোমা হামলার ঘটনার দায় আইএস শিকার করেছে- এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আইএস আছে কিনা বা এগুলো আইএসের নাম দিয়ে অপপ্রচার কিনা, তা দেখা দরকার। চূড়ান্ত প্রতিবেদন না পেলে এ বিষয়ে কিছু বলা যাবে না। কারা এ ধরনের হামলা চালাচ্ছে তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। জঙ্গি চক্রটি কথিত ইসলামিক স্টেট, আইএসের নাম ব্যবহার করছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সায়েন্স ল্যাবের হামলায় স্থানীয় সরকারমন্ত্রী টার্গেট ছিলেন কিনা, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা আমাকে জানিয়েছেন কালকের (শনিবারের) ঘটনায় মন্ত্রী টার্গেট ছিলেন না। জঙ্গিরা এর আগেও পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছিল। তাদের হামলার টার্গেট মন্ত্রী ছিল না।

আসামে চলমান পরিস্থিতি নিয়ে কাদের বলেন, নাগরিকত্ব বিষয়টি ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা ঠিক হবে না। বাংলাদেশকে নিয়ে দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র চলছে। এ ব্যাপারে সরকার সতর্ক রয়েছে বলে জানান তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা