kalerkantho

ডেঙ্গুতে আরো তিনজনের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ আগস্ট, ২০১৯ ১০:২৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ডেঙ্গুতে আরো তিনজনের মৃত্যু

গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ফরিদপুর, বরগুনার আমতলী ও শরীয়তপুরের ডামুড্যায় আরো তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশের হাসপাতালে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছে এক হাজার ৫৭২ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা বলেন, ‘ঢাকার বাইরে যারা আক্রান্ত হচ্ছে বা হয়েছে তাদের বেশির ভাগই মূলত ঢাকা থেকে যাওয়া। তারা হয়তো রাজধানীতে বসেই ভাইরাস বহন করে নিয়ে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে অন্য জায়গায়। পরে অনেকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেয়, আবার অনেকে ঢাকায় এসে কোনো না কোনো হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। এদিকেও আমাদের নজরদারি রয়েছে। প্রতিদিনই ঢাকার বাইরে বিভিন্ন পর্যায়ের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। দিচ্ছেন নানা দিকনির্দেশনা।’

এদিকে নতুন-পুরনো রোগী মিলে সারা দেশে গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ভর্তি হওয়া চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ছয় হাজার ৪৭০ জন, যা আগের দিনের চেয়ে ৪ শতাংশ কম। এর মধ্যে ঢাকা মহানগরীতে মোট ভর্তি রোগী তিন হাজার ৪১৩ জন ও ঢাকার বাইরে তিন হাজার ৫৭ জন। এ হিসাবে এ পর্যন্ত ঢাকা ও ঢাকার বাইরের মোট রোগীর যথাক্রমে ৮৯ শতাংশ ও ৮৬ শতাংশ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। গত ১ জানুয়ারি থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫৬ হাজার ৩৬৯ জন ও হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নেওয়া রোগীর সংখ্যা ৪৯ হাজার ৮৫৯ জন। এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০টি পরিদর্শক দল বিভিন্ন হাসপাতালে পরিদর্শনে নিয়োজিত আছে। প্রতিদিন পরিচালক, হাসপাতাল ও ক্লিনিকের কাছে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ফরিদপুর থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে গত সোমবার রাতে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন রিকশাভ্যান চালক সাহেব আলী (৪৫)। তিনি রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নের মাটিপাড়া গ্রামের মনসের আলীর ছেলে। ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. কামদা প্রসাদ সাহা জানান, রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল থেকে গত সোমবার দুপুরে সাহেব আলী আশঙ্কাজনক অবস্থায় এখানে ভর্তি হন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। এ পর্যন্ত এই হাসপাতালে সাত ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি জানান, ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে গত সোমরার রাতে বরগুনার আমতলীর সহকারী শিক্ষিকা আসমা বেগমের (৪৫) মৃত্যু হয়েছে। তিনি আমতলী একে হাই স্কুলসংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা ছিলেন। কলাপাড়ার নীলগঞ্জ দৌলতপুর সালেহিয়া ইসলামিয়া সিনিয়র মাদরাসার সহকারী শিক্ষক মো. সোহরাফ হোসেন স্বপন তালুকদারের স্ত্রী আসমা বেগম গত শনিবার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন। তিনি প্রথমে পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। গত সোমরার রাত ৮টার দিকে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আসমাকে বরিশাল শেরে-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। বরিশালে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে ১২টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

এদিকে ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি জানান, শরীয়তপুরের ডামুড্যায় গতকাল মঙ্গলবার ভোরে সুরাইয়া আক্তার (৩২) নামের এক গৃহবধূ ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তিনি ডামুড্যা উপজেলা সদরের কামাল হোসেন ঢালীর স্ত্রী। এ নিয়ে শরীয়তপুরে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে তিন নারীর মৃত্যু হলো।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা