kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

দুই নাতনিকে কাছে পেয়ে হাসপাতালে খালেদার 'আনন্দময়' ঈদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ আগস্ট, ২০১৯ ১৯:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুই নাতনিকে কাছে পেয়ে হাসপাতালে খালেদার 'আনন্দময়' ঈদ

দুই নাতনিকে নিয়ে বাসায় রান্না করা খাবার খেয়েছেন দুর্নীতির মামলায় কারাবন্দি বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। এবার দুই নাতনির সঙ্গে কোরবানির ঈদ উদযাপন করেছেন তিনি। এতে বেগম জিয়া খুব খুশি হয়েছেন।

আজ সোমবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে ঈদের দিনে কিছুটা সময় পুত্রবধূ, ভাই ও নাতনিদের সঙ্গে কাটানোর সুযোগ হয়েছে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর।

স্বজনরা জানান, ঈদের দিন দুই নাতনিকে কাছে পেয়ে খুশি হয়েছেন অসুস্থতার কারণে কারা তত্ত্বাবধানে হাসপাতালে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন।

দুপুরের দিকে খালেদা জিয়ার প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি, কোকোর দুই কন্যা জাহিয়া রহমান ও জাফিয়া রহমান ছাড়াও বেগম জিয়ার ভাই শামীম ইস্কান্দার, স্ত্রী কানিজ ফাতেমা ও তাদের ছেলে অভিক ইস্কান্দার বিএসএমএমইউতে প্রবেশ করেন।

হাসপাতালে গিয়ে শুরুতেই কোকোর দুই মেয়ে দাদির পা ছুঁয়ে সালাম করেন। এ সময় বেগম জিয়াও তাদের বুকে জড়িয়ে আদর করেন।

ঈদ উপলক্ষে কোকোর স্ত্রী সিঁথি বাসা থেকে শাশুড়ির জন্য পোলাও, মাংসের রেজালা, আলুর চপ, সবজি, জর্দা, দুধ-সেমাই ও মিষ্টি প্রস্তুত করে নিয়ে যান। হাসপাতালে খালেদা তাঁর দুই নাতনিকে পাশে বসিয়ে বাসা থেকে আনা খাবার খান। এ সময় গৃহকর্মী ফাতেমা বেগমও ঈদের বেগম জিয়ার সঙ্গে ঈদের খাবার খান।

হাসপাতালের বিশেষ সূত্র জানান, ঈদের দিনটিতে পরিবারের সদস্যদের কাছে পেয়ে কিছুটা সময় হলেও ভালো কাটিয়েছেন খালেদা জিয়া। প্রায় দুই ঘণ্টা স্বজনদের সঙ্গে অন্যরকম এক সময় কাটান সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। এসময় তিনি অসুস্থ অবস্থায়ও দেশবাসীর খোঁজ নেন, দেশের সার্বিক পরিস্থিতি ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সম্পর্কে জানতে চান।

উল্লেখ্য, দুই মামলায় ১৭ বছরের সাজা নিয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি আছেন খালেদা জিয়া। গত ১ এপ্রিল অসুস্থতার কারণে তাকে বিএসএমএমইউর ৬ তলার ৬২১ নম্বর কেবিনে বন্দিদশায় চিকিৎসার জন্য আনা হয়। এর পর থেকে তিনি সেখানেই আছেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা