kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাংলাদেশ বিশ্ব দক্ষতা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে যাচ্ছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ আগস্ট, ২০১৯ ২০:১১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাংলাদেশ বিশ্ব দক্ষতা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে যাচ্ছে

বাংলাদেশ এই প্রথমবারের মত বিশ্ব দক্ষতা প্রতিযোগিতা ২০১৯ এ অংশ নিতে যাচ্ছে। আগামী ২২ থেকে ২৭ আগস্ট রাশিয়ার কাজানে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ দুটি ট্রেডে দুই প্রতিযোগী অংশ নেবে। বুধববার বিকেলে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (এনডিএসএ)'র সেমিনার রুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এতথ্য জানানো হয়।  

বিশ্ব দক্ষতা প্রতিযোগিতা ২০১৯ এর অংশ নিতে সরকারের প্রস্তুতি সম্পর্কে অবহিত করতে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এনএসডি'র নির্বাহী চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন এসব বিষয় অবহিত করেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও এনএসডিএ'র সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাসহ শিল্প দক্ষতা পরিষদের প্রতিনিধি, প্রতিযোগী, টেকনিক্যাল এক্সপাটরাও উপস্থিত ছিলেন

দেশে জাতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত রাইজিং স্টার প্রতিযোগীতার মধ্য দিয়ে দুটো ট্রেডে নির্বাচিত দুই চ্যাম্পিয়ন ফ্যাশন ডিজাইনে নাফিসা সাদাফ  আচল এবং কনফেকশনারি এ্যান্ড প্যাটিসেরিতে তানজিম তাবাস্ সুম ইসলাম প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে। 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এক্ষেত্রে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। দেশে প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর তাদের গ্রুমিং চলছে। হোটেল রেডিসান, হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল ও কুপারস এই ক্ষেত্রে সহায়তা করছে। ফ্যাশন ডিজাইনে বিজিএমইএ সহায়তা করছেন। এছাড়াও সংশ্লিষ্ট শিল্প দক্ষতা ফ্যাশন ডিজাইন এবং কনফেকশনারি এ্যান্ড প্যাটিসেরি নির্বাচিত দুই পরিষদ সামগ্রিক সহায়তা করছে। 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান বলেন, বাংলাদেশ এই প্রথমবারের মত বিশ্ব দক্ষতা প্রতিযোগিতা ২০১৯ এ অংশ নিতে যাচ্ছে। আগামী ২২ থেকে ২৭ আগস্ট রাশিয়ার কাজানে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতায়য় বাংলাদেশ দুটি ট্রেডে অংশ নেবে এবং এর জন্য নির্বাচিত প্রতিযোগিদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ চলছে।

সরকার আশাবাদী এই প্রতিযোগীরা বিশ্ব প্রতিযোগীতায় সফলতা দেখাবেন। দেশের জনগোষ্ঠীকে জনশক্তিতে রুপান্তর ও দক্ষ জনশক্তি হিসেবে তাদের কর্মসংস্থান ও আত্মকর্মসংস্থানের কোন বিকল্প নেই। সরকারের রাজনৈতিক ইশতেহারেও বলা হয়েছে "তারুণ্যের শক্তি বাংলাদেশের সমৃদ্ধি"। এই ইশতেহারে তরুণ যুব সমাজকে দক্ষ জনশক্তিতে রুপান্তর ও কর্মসংস্থানের অঙ্গীকার করা হয়েছে। দেশের তরুণ সমাজকে দক্ষ করে গড়ে তোলার কার্যক্রমকে সমন্বয় ও মান নিশ্চিতকরণের জন্য প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। বিশ্ব দক্ষতা প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের তরুণ সমাজের দক্ষতা মান বিশ্বব্যাপী প্রচার ও প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

এনএসডিএ সদস্য রেজাউল করিম প্রতিযোগিতার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ  ২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর এই সংস্থার সদস্য পদ লাভ করে। ৬০টি দেশ এবারের প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে। বাংলাদেশ এই প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণের জন্য আটটি ক্যাটাগরিতে প্রি-রেজিস্ট্রশন করে। পরে চূড়ান্ত রেজিস্ট্রেশনে দুই ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতার জন্য মনোনীত হয়। প্রতিযোগীসহ ১২ সদস্যদের একটি ডেলিগেট টিম রাশিয়ায় যাবে। এই প্রতিযোগিতার একটি প্যারালাল সেশনের  অংশ হিসাবে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনিও রাশিয়া যাবেন বলেও জানান তিনি। 

দুই প্রতিযোগী দুইটি প্রতিযোগীতায় অংশ নিতে রাশিয়া গেলেও একজনকে স্টান্টবাই হিসাবে প্রস্তুত রাখা হবে দেশে। অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীর কোন অসুবিধা হলে তাকে পাঠানো হবে বলেও জানান কর্তৃপক্ষ। 

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ ওয়াল্ড স্কিলস'র ৭৯তম সদস্য। জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আঞ্চলিক ও বিশ্ব পর্যায়ের সকল দক্ষতা প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার অংশ হিসাবে এই প্রতিযোগিতায় দেশের দক্ষতা উন্নয়নের অবস্থান বিশ্বব্যাপী প্রচার ও আন্তর্জাতিক বাজারে বাংলাদেশেরর দক্ষ জনশক্তি রপ্তানি বৃদ্ধি করতে এসব উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা