kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৩ আগস্ট ২০২০ । ২২ জিলহজ ১৪৪১

প্রিয়া সাহার বক্তব্যকে নিয়ে কোনো মহলই যেন ফায়দা লুটতে না পারে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ জুলাই, ২০১৯ ১৫:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রিয়া সাহার বক্তব্যকে নিয়ে কোনো মহলই যেন ফায়দা লুটতে না পারে

প্রিয়া সাহার বক্তব্যকে নিয়ে কোনো মহলই যেন ফায়দা লুটতে না পারে সে বিষয়ে সকলকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ। সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া কবীর আজ রবিবার এক বিবৃতিতে ওই বক্তব্যে অগ্রহণীয় ও অশোভন বলেও দাবি করা হয়েছে। 

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রিয়া সাহার এই ভূমিকা অত্যন্ত লজ্জাজনক। আমরা ঘৃণাভরে তার এই ধরণের নতজানু মনোবৃত্তির নিন্দা জানাই। তবে কেউ যেন তার বিরোধিতা করতে গিয়ে ধর্মীয় বা অন্য কোনো অবস্থান থেকে কোনো উসকানিমূলক কথাবার্তা না বলেন এবং নারী বা সংখ্যায় অল্প জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে কোনো বক্তব্য না রাখেন। সবাই যেন স্ব স্ব অবস্থান থেকে এ ব্যাপারে দায়িত্বশীল আচরণ করেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরা সবাই জানি, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার বিরোধিতা করেছে ও মুক্তিযুদ্ধের শেষদিকে বঙ্গোপসাগরে সপ্তম নৌবহর পাঠিয়েছে। যদিও সে দেশের জনগণ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে অনেক সহযোগিতা দিয়েছে। পঁচাত্তরে সপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যা এবং জাতীয় চারনেতা হত্যায়ও তাদের ভূমিকা ছিল। আর আফগানিস্তানে কমিউনিজম ঠেকানোর নামে তালেবান, আলকায়েদাসহ ধর্মীয় মৌলবাদী গ্রুপকে কারা তৈরি করেছে ও সহযোগিতা দিয়েছে সেটাও সকলেরই জানা। মধ্যপ্রাচ্যসহ ল্যাটিন আমেরিকা, আফ্রিকা ও এশিয়ার বিভিন্ন দেশে জনপ্রিয় নেতাদের হত্যা করে রেজিম চেঞ্জের নামে দেশগুলোতে অরাজকতা ও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব তৈরির উসকানিতে কাদের হাত জনগণের সেটাও অজানা নয়। এছাড়া সারা পৃথিবীতে উত্তেজনা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি ও দারিদ্র্য টিকিয়ে রাখার মূল দায়িত্ব কার ওপরে বর্তায় সে সম্পর্কে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে আমরা বিভিন্ন প্রতিবেদন, নিউজ রিপোর্ট, প্রবন্ধ, মন্তব্য প্রকাশিত হতে দেখছি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের বুদ্ধিজীবীদের বিশ্লেষণী মন্তব্যেও এ ব্যাপারে তথ্য পাওয়া যায়। সবার দৃষ্টিতেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অগণতান্ত্রিক, স্বৈরাচারী, নারীবিরোধী ও বর্ণবাদী বলেও ওই বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা